ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

কমিশনারের পদমর্যাদা বাড়ছে

জনবলে স্বয়ংসম্পূর্ণ হচ্ছে সিএমপি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩০৪ ঘণ্টা, মার্চ ৮, ২০১৪
জনবলে স্বয়ংসম্পূর্ণ হচ্ছে সিএমপি

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগর পুলিশ কমিশনার পদ অতিরিক্ত আইজি পদে উন্নীত হচ্ছে। ডিআইজি সমমানের পদে উন্নীত হচ্ছে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পদ।

একইসঙ্গে অতিরিক্ত ডিআইজি’র মর্যাদায় সিএমপিতে যুক্ত হচ্ছে দু’টি যুগ্ম কমিশনার পদও।

এছাড়া সিএমপিতে নতুনভাবে পাঁচ হাজার পুলিশ নিয়োগের প্রস্তাবও গেছে সদর দপ্তরে।

বাণিজ্যনগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত চট্টগ্রামের ব্যবসায়িক গুরুত্ব, ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা, নগর সম্প্রসারণ ও অপরাধের মাত্রা বেড়ে যাওয়াসহ সার্বিক বিষয় বিবেচনায় রেখে নগর পুলিশ এসব প্রস্তাব সদর দপ্তরে পাঠিয়েছে। সদর দপ্তর এসব প্রস্তাব যাচাই বাছাই করে প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে বলেও জানা গেছে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদার বাংলানিউজকে বলেন, জনবল সংকটের কারণে আমাদের শিল্প পুলিশ, এপিবিএন থেকে ধার করে এনে নিয়মিত কাজ চালাতে হয়। এজন্য সদর দপ্তরের কাছে অতিরিক্ত পাঁচ হাজার পুলিশ চাওয়া হয়েছে। পুলিশ বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদন হয়েছে। তবে সিএমপিতে কি পরিমাণ জনবল দেয়া হবে সেটা এখন পুলিশ সদর দপ্তর যাচাইবাছাই করছে।

পদমর্যাদা বাড়ানোর বিষয়টি পুলিশ সদর দপ্তর প্রায় চূড়ান্ত করেছে বলে জানান বনজ কুমার মজুমদার।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, ১৯৭৯ সালে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) সৃষ্টির পর কয়েক দফা লোকবল বাড়ানো হয়। সর্বশেষ ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর পদ বাড়িয়ে ৪৩০ জন পুলিশ সদস্যকে সিএমপিতে যুক্ত করা হয়। বর্তমানে সিএমপিতে পুলিশ ও সিভিল মিলিয়ে মোট ৩২টি পদে ৫ হাজার ৭৮৫ মঞ্জুরীকৃত জনবল আছে।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠানো প্রস্তাবে ৪ হাজার ৯৪৫ জন পুলিশ এবং ২১০ জন সিভিল স্টাফসহ মোট ৫ হাজার ১৫৫ জন বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে।

প্রস্তাবে যুগ্ম পুলিশ কমিশনার দু’জন, উপ-পুলিশ কমিশনার ৬ জন (বর্তমানে ১০), অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ৩৩ জন (বর্তমানে ১৫), সহকারী পুলিশ কমিশনার ৬২ জন, (বর্তমানে ২৩), ইন্সপেক্টর নিরস্ত্র ১৮ জন (বর্তমানে ৬২), ইন্সপেক্টর সশস্ত্র ২৫ জন (বর্তমানে ২০), ইন্সপেক্টর প্যাট্রোল ৬ জন (বর্তমানে ২১), এসআই নিরস্ত্র ৩৫৪ জন (বর্তমানে ৩৯০), এসআই সশস্ত্র ৩৪ জন (বর্তমানে ৫২), সার্জেন্ট ১৫৬ জন (বর্তমানে ১৮২), টিএসআই ১২ জন (বর্তমানে ২), এএসআই নিরস্ত্র ৪৯৯ জন (বর্তমানে ৩১৭), এএসআই সশস্ত্র ১০৮ জন (বর্তমানে ১৬৮), নায়েক ৬৯ জন (বর্তমানে ২৮০), কনস্টেবল ৩ হাজার ৫৫৯ জন (বর্তমানে ৩ হাজার ৮৮৯) নতুনভাবে দেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

এছাড়া সিভিল স্টাফদের মধ্যে এসিস্ট্যান্ট প্রোগ্রামার ৩ জন (বর্তমানে ১ জন), কম্পিউটার অপারেটর ৭ জন (বর্তমানে ৩ জন), প্রধান সহকারী ৮জন (বর্তমানে ৯ জন), স্টেনো-গ্রাফার কাম কম্পিউটার অপারেটর ১০ জন (বর্তমানে ১৪ জন), স্টেনো-টাইপিস্ট কাম কম্পিউটার অপারেটর ৪৯ জন (বর্তমানে ৬ জন), উচ্চমান সহকারী ৪ জন (বর্তমানে ৫ জন), রিডার সহকারী ২ জন (বর্তমানে ৫ জন), অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ১২ জন (বর্তমানে ২৮ জন), এম এল এস এম ১ জন (বর্তমানে ৯ জন), বাবুর্চি (আউটসোর্সিং সহ) ৫৩ জন (বর্তমানে ৪৯ জন), সুইপার (আউটসোর্সিং সহ) ৬১ জন (বর্তমানে ৫২ জন) বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নগর পুলিশ কমিশনারের বর্তমান পদটি ডিআইজি সমমানের। আর অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পদ অতিরিক্ত ডি‌আইজি সমমানের।

প্রস্তাবে তাদের পদমর্যাদা এক ধাপ করে বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। আর অতিরিক্ত ডিআইজি সমমানের দু’টি যুগ্ম কমিশনার পদ সৃষ্টির কথা বলা হয়েছে। আর বর্তমানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারের দু’টি পদ থেকে কমিয়ে একটি করার কথা প্রস্তাবে বলা হয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তর সিএমপির এ প্রস্তাবের সঙ্গে নীতিগতভাবে একমত হয়ে সেটির অনুমোদন চূড়ান্ত করেছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পুলিশ সদর দপ্তর মন্ত্রণালয়ে ৫০ হাজার জনবল নিয়োগের প্রস্তাব করেছিল। প্রস্তাবটি স্বরাষ্ট্র, সংস্থাপন, অর্থ মন্ত্রণালয় ঘুরে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সম্প্রতি অনুমোদনসহ ছাড় পেয়েছে। এতে ২০ হাজার পুলিশ সদস্য নিয়োগের অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫০ঘণ্টা, মার্চ ০৮,২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa