bangla news

শনিবার শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা

82 |
আপডেট: ২০১৪-০৩-০৬ ৭:৫৮:০০ এএম

নগরীর পোলোগ্রাউন্ড মাঠে আগামী শনিবার শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত ২২তম চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা(সিআইটিএফ)।

চট্টগ্রাম: নগরীর পোলোগ্রাউন্ড মাঠে আগামী শনিবার শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত ২২তম চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা(সিআইটিএফ)।

৪ লাখ বর্গফুটের বিশাল পরিসরে এবারের মেলায় ১২টি প্রিমিয়ার গোল্ড প্যাভিলিয়ন, ২টি মিনি গোল্ড প্যাভিলিয়ন, ৮টি প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন এবং ১৬টি স্ট্যান্ডার্ট প্যাভিলিয়ন, ১২৭টি প্রিমিয়ার মেগা বুথ, ৫০টি মেগা বুথ, ১০টি প্রিমিয়ার গোল্ড বুথ, ৩৮টি প্রিমিয়ার বুথ, ১৪টি স্ট্যান্ডার্ট বুথ ও তিনটি রেস্টুরেন্টসহ মোট ৩৮টি প্যাভিলিয়ন ও ২৩৯টি স্টল নিয়ে চার শতাধিক প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিচ্ছে।

শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় মেলার উদ্বোধন করবেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। সংসদ সদস্য এম আবদুল লতিফ ও এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর আগ্রাবাদে চেম্বার হাউস মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মেলা কমিটির চেয়ারম্যান নুরুন্নেওয়াজ সেলিম।

দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার স্বপ্ন বাস্তবায়নে দেশিয় শিল্পের প্রসার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে লিখিত বক্তব্যে মেলা কমিটির চেয়ারম্যান বলেন, চট্টগ্রাম চেম্বার ব্যবসায়ীদের অভিভাবক সংগঠন হিসেবে প্রয়োজনীয় নীতি নির্ধারণে সরকারের সঙ্গে ব্যবসায়ী সমাজের দাবির সমন্বয় সাধন, উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিতকরণ, শিল্পায়নের গতি তরান্বিতকরণ এবং উৎপাদিত পণ্যের বিপণন, প্রচার ও প্রসারের সহায়ক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে।

বাণিজ্য মেলা এরই একটি অংশ উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশিয় শিল্প, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারে বিশাল ভূমিকা পালন করছে। মেলায় আগত দর্শনার্থীরা এসব পণ্য সুলভ মূল্যে ক্রয়ের সুযোগ পাচ্ছে। ফলে বিদেশি পণ্যের পরিবর্তে দেশিয় পণ্যের বাজার সম্প্রসারিত হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা নাগরিক বিনোদনের আধার হয়ে উঠেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যান্ত্রিকতা থেকে মুক্তি পেতে নগরবাসী মেলা পরিদর্শনে যান। ফলে এ মেলা আনন্দ উৎসবে রূপ নেয়।

অন্যান্য বছরের মতো থাইল্যান্ড মেলার কান্ট্রি পার্টনার হিসেবে সাড়ে ৪ হাজার বর্গফুট জায়গা নিয়ে মেলায় অংশ নিচ্ছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। এছাড়া মেলায় নিজস্ব পণ্য নিয়ে ভারত, চীন, থাইল্যান্ড ও ইরান অংশ নিচ্ছে।

মেলার সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে নুরুন্নেওয়াজ সেলিম বলেন, নিরাপত্তা বিষয়টি বিশেষ বিবেচনায় নিয়ে মেলা সংলগ্ন এলাকায় ৠাব পুলিশের অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

মেলা চলবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত। মেলার প্রবেশ মূল্য রাখা হয়েছে ১০টাকা। 

মেলা চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনার মেলা পরিদর্শন জানিয়ে মেলার চেয়ারম্যান বলেন, এতে ওইসব দেশেও বাংলাদেশের পণ্যের বাজার সম্প্রসারণের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

মেলা চলাকালীন সময়ে চট্টগ্রামের উন্নয়ন নিয়ে কয়েকটি সেমিনার ও রাউন্ডটেবিল বৈঠকের আয়োজন করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা মেলা পরিদর্শন করবেন। যা দেশিয় শিল্পের বিকাশে প্রয়োজনীয় নীতি নির্ধারণে সহায়ক হবে।

মেলা তথ্য কেন্দ্রের পাশাপাশি দর্শনার্থীদের জন্য বিনামূল্যে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ওয়াই-ফাই ব্যবহারের সুযোগ থাকবে। আর্থিক লেনদেনের জন্য থাকবে ব্যাংকের অস্থায়ী শাখা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যানের মধ্যে চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম, সহ-সভাপতি জামাল আহমেদসহ চেম্বার পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়:১৮৩০ঘণ্টা, মার্চ ০৬, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-03-06 07:58:00