[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪২৫, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
bangla news

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন সম্মাননা পেল ১২ গুণীজন

78 |
আপডেট: ২০১৪-০২-২১ ১০:৩৮:০০ এএম

নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য চট্টগ্রামের সাত গুণীজনকে একুশে স্মারক সম্মাননা এবং ৫ সাহিত্যিককে সাহিত্য পুরস্কার দিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন।

চট্টগ্রাম: নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য চট্টগ্রামের সাত গুণীজনকে একুশে স্মারক সম্মাননা এবং ৫ সাহিত্যিককে সাহিত্য পুরস্কার দিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন।

শুক্রবার বিকেলে নগরীর মুসলিম হল প্রাঙ্গণে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক  অনুষ্ঠানে সম্মাননা পদক তুলে দেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা আন্দোলনে এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও আবদুল্লাহ আল নোমান, সাংবাদিকতায় আবুল মোমেন, শিল্প ও বাণিজ্যে সুফী মিজানুর রহমান, ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে আলী আব্বাস, সমাজসেবায় আবু তাহের সওদাগর এবং শিক্ষায় (মরণোত্তর) আব্দুল মাবুদ সওদাগরকে  একুশে স্মারক সম্মাননা দেয়া হয়।

এছাড়া সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন কবিতায় স্বপন দত্ত, কথা সাহিত্যে ফেরদৌস আরা আলীম, শিশু সাহিত্যে ফাহমিদা আমিন, প্রবন্ধ ও গবেষণায় মহীবুল আজিজ, বিশ্ব সাহিত্যে মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন।

একুশে স্মারক সম্মাননা পদক প্রাপ্তদের মধ্যে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী , আবুল মোমেন, সুফী মিজানুর রহমান, আবু তাহের সওদাগর ও আলী আব্বাস, আবদুল্লাহ আল নোমানের পক্ষে তার পুত্র সাঈদ আল নোমান এবং আব্দুল মাবুদ সওদাগরের (মরণোত্তর) পুত্র জাহিদ হোসেন পদক গ্রহণ করেন।

ব্যবসা বাণিজ্যসহ সবকিছুই ঢাকা কেন্দ্রিক হয়ে গেছে উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন চট্টগ্রাম নগরীর ঐতিহ্যকে পুনরুদ্ধার করতে নিজ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারকে আধুনিকায়নের মাধ্যমে আকর্ষণীয় করে তুলতে গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে জায়গা বরাদ্দ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বলেন, বাঙালী জাতিসত্তার জাগরণের প্রতীক বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন।  এ আন্দোলনের পথ বেয়ে একাত্তরে অর্জিত হয়েছে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ।

১২ জন কৃতী ব্যক্তিত্বের অবদান আগামী প্রজন্মকে দেশপ্রেম ও নিষ্ঠার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ নির্মাণে উদ্বুদ্ধ করবে বলে আশা প্রকাশ করে মেয়র বলেন, কর্পোরেশন ধারাবাহিকভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনেরও একটি সম্মাননা পাওয়া উচিত। কারণ এই প্রতিষ্ঠানটি বহুদিন ধরে নগরবাসীকে নানাভাবে সেবা দান করে আসছে।

শিল্পপতি সুফী মিজানুর রহমান বলেন, বিশ্বের কোন জাতি ভাষার জন্য প্রাণ দেয়নি। মায়ের ভাষায় যে জাতি আলো ছড়াতে জানেনা তারা উন্নতি করতে পারেনা।

তাই তিনি স্ব স্ব অবস্থান থেকে দেশের সকল নাগরিককে নিবেদিত হয়ে দেশের জন্য কাজ করার আহবান জানান। 

নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ভাষা দিবসের চেতনাকে সর্বক্ষেত্রে ধরে রাখার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাঈদ আল নোমান এবং সিটি কর্পোরেশনের সমাজকল্যাণ স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী  বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়:২১৩৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db