bangla news

যুবলীগ কর্মী খুনের দায় স্বীকার করে শিবির কর্মীর জবানবন্দি

22 |
আপডেট: ২০১৪-০১-১৮ ১০:২৪:১২ এএম

যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির আয়োজনকে কেন্দ্র করে সহিংসতার সময় সাতকানিয়ার যুবলীগ কর্মী আব্দুল জব্বারকে (২৬) খুনের দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে জাবেদ জাহাঙ্গীর নামে এক শিবির কর্মী।

চট্টগ্রাম: যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির আয়োজনকে কেন্দ্র করে সহিংসতার সময় সাতকানিয়ার যুবলীগ কর্মী আব্দুল জব্বারকে (২৬) খুনের দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে জাবেদ জাহাঙ্গীর নামে এক শিবির কর্মী। একইসঙ্গে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত এক শিবির নেতাসহ ১২ জনের নাম প্রকাশ করেছে জাবেদ।

শনিবার বিকেলে চট্টগ্রামের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শিবির কর্মী জাবেদ জবানবন্দি দেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) নাজমুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, জাবেদ জাহাঙ্গীর খুনের দায় স্বীকার করেছে। উপজেলা পর্যায়ের শিবিরের এক শীর্ষ নেতা এবং আরও ১১ জন শিবির কর্মী সহিংসতার সঙ্গে জড়িত ছিল বলে সে জানিয়েছে। আমরা তার জবানবন্দির ভিত্তিতে অপরাধীদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাব।

গত ১০ ডিসেম্বর রাতে কাদের মোল্লা ওরফে কসাই কাদেরের ফাঁসির সব আয়োজন শেষ হয়েও আইনি জটিলতায় ওইদিন ফাঁসি হয়নি। একদিকে যখন চলছিল যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির আয়োজন, অন্যদিকে তার দোসরদের ঘাঁটি চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় চলছিল জামায়াত-শিবিরের নিমর্ম বর্বরতা।

ফাঁসি না হলেও ওইদিন রাত ১২টার দিকে সাতকানিয়া উপজেলার কেওচিয়া ইউনিয়নের মাদারবাড়ি গ্রামে যুবলীগ কর্মী আব্দুল জব্বারের বাড়িতে হামলা করে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা। তারা পাকা ঘরের লোহার গ্রিল কেটে ঢুকে জব্বারকে নৃশংসভাবে মাথায় আঘাত করে ও কুপিয়ে ফেলে রেখে চলে যায়। সেই জব্বার টানা ৯দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ১৮ ডিসেম্বর সকাল ১১টার দিকে পৃথিবী থেকে বিদায় নেয়।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে উপজেলার ছদাহা থেকে জাবেদ জাহাঙ্গীর নামে ছাত্রশিবিরের সক্রিয় এক কর্মীকে আটক করে পুলিশ। তাকে শনিবার দুপুরে আদালতে হাজির করে পুলিশ।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, জবানবন্দিতে জাবেদ জাহাঙ্গীর জানিয়েছে, ১০ ডিসেম্বর তারা ২০-২৫ জনের একটি দল ছদাহা থেকে কেরাণীহাটের পূর্ব অংশে সহিংসতা শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা আব্দুল জব্বারের বাড়িতে হামলা চালায়। সেখানে তাকে কুপিয়ে রেখে তারা চলে যায়। পরে যখন তারা জানতে পারে, কাদের মোল্লার ফাঁসি হচ্ছেনা, তখন তারা আর কোন সহিংসতা না করে চলে যায়।

নিহত আব্দুল জব্বারের বাবা লাল মিয়া বান্দরবানে গণপূর্ত বিভাগের গাড়িচালক। তারা দু’ভাই, দু’বোন। সাতকানিয়ার রাস্তার মাথা এলাকায় দু’ভাই মিলে একটি মুদির দোকান চালাত।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৮ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৮,২০১৪
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-01-18 10:24:12