ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৫ মে ২০১৯
bangla news

কর্মসূচি পালনে বাধা দেওয়ার অভিযোগ বিএনপির

22 |
আপডেট: ২০১৪-০১-১১ ৯:৪৫:৪৯ এএম

চট্টগ্রামে দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি করতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। একই সঙ্গে গণতান্ত্রিক কর্মসূচিতে বাধা দিলে ভবিষ্যতে আরও কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন বিএনপি নেতারা।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি করতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। একই সঙ্গে গণতান্ত্রিক কর্মসূচিতে বাধা দিলে ভবিষ্যতে আরও কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন বিএনপি নেতারা।

শনিবার বিকেলে নগরীর আশকারদিঘীর পাড় এলাকায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নগর বিএনপির সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান।

লিখিত বক্তব্যে তিনি অভিযোগ করেন,‘শনিবার কেন্দ্র ঘোষিত নির্বাচনোত্তর সারাদেশে ১৮ দলীয় জোট কর্মী নিহত, গণহারে গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সকাল থেকেই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কর্মসূচি  স্থল দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবন ও এর আশপাশের এলাকা ঘেরাও করে রেখেছে।’

কর্মসূচি পালনে বাধা দিয়ে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন আবু সুফিয়ান।

তিনি বলেন,‘আমরা নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি না মানা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাবো। দমন নিপীড়ন ও গ্রেপ্তার নির্যাতন করে গণতান্ত্রিক আন্দোলন দমানো যাবে না। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথে গণতন্ত্র ও গণতন্ত্রের ভোটাধিকার রক্ষার জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাবো।’

অতীতে জণগনের আন্দোলনকে কেউ বলপ্রয়োগ করে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি উল্লেখ করে বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান বলেন,‘আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে এ আন্দোলন থামানো যাবে না। গণতান্ত্রিক কর্মসূচিতে ভবিষ্যতে বাধা দিলে প্রয়োজনে আরও কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।’

২৯ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি‘ কর্মসূচিতে যেতে না দিয়ে সরকার অগণতান্ত্রিক ও বাকশালি আচরণ করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সরকার গায়ের জোরে জনগণের উপর একতরফা নির্বাচনের বোঝা চাপিয়ে দিচ্ছে অভিযোগ করে বিএনপি নেতা আবু সুফিয়ান বলেন,‘দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষকে ভোট বঞ্চিত করে তামাশার নির্বাচনের নামে সরকার রাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে।’

সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন,‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশে এই ধরনের ঘটনা যারা ঘটিয়েছে তাদের খোঁজে বের করতে একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কমিটি গঠনের দাবি করছি। একই সঙ্গে বিষয়টিকে পুঁজি করে বিএনপির উপর ঢালাওভাবে দোষ চাপানোর যে চেষ্টা চলছে তার নিন্দা জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা আবুল হাসেম বক্করসহ আটক নেতাদের মুক্তির দাবি জানানো হয়।

একই সঙ্গে নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনসহ দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন, ১৮ দলের জোটের ন্যাপের নগর সভাপতি ওসমান গণি সিকদার, লেবার পার্টির নগর সভাপতি আলাউদ্দিন আলী, উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলী, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১,২০১৪
সম্পাদক: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-01-11 09:45:49