ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১৮ মহররম ১৪৪৬

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

পটিয়া ও রাউজানে দুই ভুয়া ডাক্তারকে জরিমানা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৬ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
পটিয়া ও রাউজানে দুই ভুয়া ডাক্তারকে জরিমানা ...

চট্টগ্রাম: এমবিবিএস ডিগ্রিধারী না হয়েও রোগীদের সঙ্গে চিকিৎসার নামে প্রতারণার দায়ে পটিয়া ও রাউজানে দুই ভুয়া ডাক্তারকে জরিমানা করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের বাণিজ্য না করার বিষয়ে নেওয়া হয় তাদের মুচলেকা।

তারা হলেন- পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নের মৃত নুরুজ্জামানের মেয়ে তাহেরা বেগম (৪৪) ও পুলক কান্তি দে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে পটিয়ার শান্তির হাট এলাকার হাজী মার্কেট ২য় তলায় চেম্বার করার সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাহেরা বেগমকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস।

তাহেরা দুই বছর ধরে চেম্বার খুলে রোগী দেখছিলেন।

প্লাবন কুমার বিশ্বাস জানান, বিএমডিসির ডাক্তারি সনদ ব্যতীত চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগে ভুয়া ডাক্তার তাহেরা বেগমকে মেডিক্যাল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইনে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে তার মুচলেকা নিয়ে সতর্ক করা হয়।  

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. সাজ্জাদ ওসমান, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ শাহে এমরান, উপজেলা ভূমি অফিসের পেশকার সুদীপ্ত দাশ এবং পটিয়া থানার এসআই ইয়াছিন মাহমুদ।

অপরদিকে রাত সাড়ে আটটার দিকে রাউজান উপজেলা সদরের জলিল নগর আবসার মার্কেটের দোতলায় চেম্বারে অভিযান পরিচালনা করে পুলক কান্তি দে-কে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অংগ্যজাই মারমা।  

তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি ল্যাব সহকারীর কাজ করতেন। নগরের একটি চক্ষু হাসপাতালে চক্ষু চিকিৎসকের সহকারী হিসেবেও কাজ করেন। তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ভবিষ্যতে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে আর চিকিৎসা করবেন না মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়।
 
অভিযানে সহযোগিতা করেন থানা পুলিশের একটি দল। এ সময় ইউএনওর সঙ্গে রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সুমন ধর উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৫ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।