ঢাকা, বুধবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

মূল্য তালিকা ছাড়াই চলছিল ব্যবসা, গুনতে হলো জরিমানা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৬ ঘণ্টা, মার্চ ৪, ২০২৪
মূল্য তালিকা ছাড়াই চলছিল ব্যবসা, গুনতে হলো জরিমানা

চট্টগ্রাম: মূল্য তালিকা ও ক্রয়-বিক্রয় রশিদ না রাখায় ৬ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ৫১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসন।

সোমবার (৪ মার্চ) দুপুরের বৃহত্তর পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে এ অভিযান পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত।

অভিযানে মূল্য তালিকা না থাকা, ক্রয় বিক্রয় রশিদ না রাখায় মদিনা ট্রেডার্সকে ১০ হাজার, আজমির ভান্ডারকে ৩ হাজার, ফারুক ট্রেডার্সকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর সরাসরি ডিও/এসও বিক্রির দায়ে ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার, দ্বীন এন্ড কোম্পানিকে ৫ হাজার এবং এলাচের বৃহত্তম আমদানীকারক মেসার্স আবু মোহাম্মদ এন্ড কোম্পানিকে আমদানি মূল্যের তুলনায় অতিরিক্ত মূল্যে এলাচ বিক্রির দায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত বাংলানিউজকে বলেন, 'বিভিন্ন আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের এলসি পর্যালোচনা করে দেখা যায় শুল্কসহ এলাচের দাম কেজি প্রতি সর্বোচ্চ ১৫০০ টাকা হতে পারে, সেখানে পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ২৩০০ থেকে ৩০০০ টাকায়। এছাড়াও বেশকিছু মসলার দাম বেশি আছে বাজারে। আমরা চেষ্টা করছি দাম বাড়ার কারণটি খুজে বের করার জন্য। বারবার হাতবদল বা ডিও/এসও বিক্রিও একটি কারণ হতে পারে। আজকের অভিযানে সামান্য জরিমানা করা হয়েছে, এরপর আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পবিত্র রমজান মাসে চট্টগ্রামের বাজারকে কোন ভাবেই অস্থিতিশীল হতে দেওয়া হবে না। জেলা প্রশাসনের এ ধরনের অভিযান সামনে আরও বাড়বে। '

অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করেন সহকারী কৃষি বিপণন কর্মকর্তা আবু বক্কর এবং কোতোয়ালী থানা পুলিশের একটি টিম।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০০ ঘণ্টা, মার্চ ৪, ২০২৪ 
বিই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।