ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

নিরাপদ প্রসব সেন্টারে ধাত্রী করাতেন অপারেশন!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩
নিরাপদ প্রসব সেন্টারে ধাত্রী করাতেন অপারেশন!

চট্টগ্রাম: নগরের বাকলিয়ার বউবাজারের সুবর্ণ আবাসিক এলাকায় 'নিরাপদ প্রসব সেন্টার' নামের একটি ক্লিনিকের পরিচালক শাহাদাত হোসেনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। এ সময় ডাক্তারের উপস্থিতি ছাড়াই রোগীকে অপারেশন ও নরমাল ডেলিভারি করানোর অপরাধে ধাত্রী ফাহিমা শাহাদাতকে আটক করা হয়।

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত।  

তিনি বলেন, অভিযানে স্বাস্থ্য অধিদফতরের লাইসেন্স না থাকায় ক্লিনিকটির পরিচালক শাহাদাত হোসেনকে মেডিকেল প্র‍্যাকটিস এবং বেসরকারি ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরি (নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাদেশ ১৯৮২ অনুযায়ী ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, এছাড়া সেখানে ধাত্রী ফাহিমা শাহাদাতকে আটক করা হয়েছে। বিভিন্ন সময়ে তিনি ডাক্তারের উপস্থিতি ছাড়াই নিজে অপারেশন বা নরমাল ডেলিভারি করতেন। এ অপরাধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, আমরা শিশুমৃত্যু ও মাতৃমৃত্যু শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে কাজ করছি। চট্টগ্রামের কোনও জায়গায় এরকম অবৈধ হাসপাতাল বা ক্লিনিক গড়ে উঠতে দেওয়া হবে না। যেখানেই তথ্য পাওয়া যাবে সেখানেই অভিযান চালানো হবে।

অভিযানে সহযোগিতা করেন চট্টগ্রামের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াজেদ চৌধুরী এবং বাকলিয়া থানা পুলিশের সদস্যরা।

এর আগে গত ১৩ জানুয়ারি ক্লিনিকটিতে নরমাল ডেলিভারি করানোর পর জান্নাতুল ফেরদৌস নিহা (২২) নামের একজন প্রসূতি মায়ের মৃত্যু ঘটে। যা নিয়ে চট্টগ্রামের স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ওই ক্লিনিকে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ 
বিই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa