ঢাকা, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

মোস্তাফিজের আগুনে বোলিং, কলকাতাকে হারালো দিল্লি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৯, ২০২২
মোস্তাফিজের আগুনে বোলিং, কলকাতাকে হারালো দিল্লি

ফর্মে ফেরার ইঙ্গিতটা আগের দুই ম্যাচেই দিয়েছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। উইকেটের দেখা পেলেও ছিলেন বেশ খরুচে।

কিন্তু এবার পুরোপুরি স্বরূপে দেখা দিলেন বাংলাদেশের 'কাটার মাস্টার'। বল হাতে রীতিমত আগুন ঝরালেন তিনি। আর ফিজের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের দিনে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারিয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস।

২০২২ আইপিএলের ৪১তম ম্যাচে বৃহস্পতিবার রাতে মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ৪ উইকেটের জয় পেয়েছে দিল্লি। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে মোস্তাফিজ ও কুলদিপ যাদবের বোলিং তোপের মুখে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান তুলতে পারে কলকাতা। জবাবে ৬ উইকেট হারিয়ে ১ ওভার হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় দিল্লি।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দিল্লির শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি। রানের খাতা খোলার আগেই দলটির ওপেনার পৃথ্বী শ ড্রেসিংরুমে ফেরেন। কলকাতার পেসার উমেশ যাদবের প্রথম বলেই কট অ্যান্ড বোল্ড হন শ। এরপর দলকে ১৭ রানে রেখে বিদায় নেন তিনে নামা অজি অলরাউন্ডার মিচেল মার্শও (১৩)। তবে দিল্লি ঘুরে দাঁড়ায় ডেভিড ওয়ার্নার ও ললিত যাদবের ব্যাটে। দুজনের জুটিতে আসে ৬৫ রান।

ফিফটির দিকে ছুটতে থাকা অজি ওপেনার ওয়ার্নার ২৬ বলে ৪২ রান করে উমেশের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন। ২ রান যোগ হতেই ক্যারিবীয় স্পিনার সুনিল নারাইনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন ললিত (২২)। ধাক্কাটা আরও জোরালো হয় দিল্লির অধিনায়ক ঋষভ পন্থ (২) দ্রুত বিদায় নিলে। তাকেও বিদায় করেন উমেশ। তবে প্রথমে অক্ষর প্যাটেল (২৪) ও পরে শার্দূল ঠাকুরকে (৮*) নিয়ে বাকি পথ পাড়ি দেন রোভম্যান পাওয়েল। ক্যারিবীয় এই হার্ডহিটার মাত্র ১৬ বলে ১ চার ও ৩ ছক্কায় ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে মোস্তাফিজের আগুনে পুড়েছে কলকাতা। ৪ ওভারে শিকার ৩ উইকেট। ৪.৫০ ইকনোমি রেটে রান দিয়েছেন মাত্র ১৮। বাউন্ডারির মধ্যে দুটি চার হজম করেছেন। ডট দিয়েছেন ১৪টি। ফিজের এই আগুনে বোলিংয়ের দিনে জ্বলে ওঠেন কুলদীপ যাদবও। এই রিস্ট স্পিনার ৩ ওভারে মাত্র ১৪ রান দিয়ে তুলে নেন ৪ উইকেট।  

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা কলকাতা নাইট রাইডার্স ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪৬ রান তুলেছে। ৩৫ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর প্রতিরোধ গড়েছিলেন শ্রেয়স আয়ার। নীতিশ রানার সঙ্গে তার পঞ্চম উইকেট জুটিতে আসে ৩৪ বলে ৪৮ রান। শ্রেয়সকে ফিরিয়ে প্রতিরোধ ভাঙেন কুলদীপ। এরপর আন্দ্রে রাসেল 'ডাক' মারার পর ৭ম উইকেটে ৩৫ বলে ৬২ রানের জুটি উপহার দেন নীতিশ রানা আর রিংকু সিং। ৩৪ বলে ৫৭ রান করা নিতিশ রানাকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন মোস্তাফিজ। এরপর  নাইটদের কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন ১৬ বলে ২৩ রান করা রিংকু সিংকে ফিরিয়ে। মোস্তাফিজের তৃতীয় শিকার টিম সাউদি।

৮ ম্যাচে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে দিল্লি। অন্যদিকে ৯ ম্যাচে ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে অবস্থান কলকাতার। আর ৮ ম্যাচে ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে গুজরাট টাইটান্স।

বাংলাদেশ সময়: ০২১৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৯, ২০২২
এমএইচএম  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।