ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮, ০৭ মে ২০২১, ২৪ রমজান ১৪৪২

ক্রিকেট

ব্যাটিং ব্যর্থতায় টানা তিন পরাজয় হায়দ্রাবাদের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২১
ব্যাটিং ব্যর্থতায় টানা তিন পরাজয় হায়দ্রাবাদের হায়দ্রাবাদকে হারিয়ে জয় তুলে নিয়েছে মুম্বাই

জয়ের ভালো সুযোগ থাকা সত্ত্বেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় আইপিএলের ১৪তম আসরে নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচেই জয়শূন্য রইল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ১৩ রানে হেরে গেছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) চেন্নাইর চিপোকে এম চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করা মুম্বাই নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫০ রান তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান করতে পারে হায়দ্রাবাদ।

১৫১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দাপুটে করে হায়দ্রাবাদ দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো মিলে ৭.২ ওভারে ৬৭ রান তুলে ফেলেন। তবে এই জুটির ছন্দপতন ঘটান ক্রুনাল পান্ডিয়া। ২২ বলে ৪৩ রান বেয়ারস্টোকে হিট উইকেটে ফেরান এই স্পিনার। ইংলিশ এই ব্যাটসম্যান নিজের ইনিংসে ৩টি চার ও ৪টি ছক্কা হাঁকান।

দলীয় ৪ রানের ব্যবধানে মনিশ পান্ডের উইকেট হারায় হায়দ্রাবাদ। স্পিনার রাহুল চাহার ফেরান এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে। আর ধীর ব্যাট করা ওয়ার্নার ইনিংসে ৯০ রানে রান আউট হলে চাপে পড়ে হায়দ্রাবাদ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ও হায়দ্রাবাদ অধিনায়ক ৩৪ বলে ২টি চার ও সমান ছক্কায় ৩৬ রান করেন।

এরপর মুম্বাই বোলারদের কামব্যাকে নিয়মিত বিরতিতে আরও তিনটি উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে দলটি। শেষদিকে বিজয় শঙ্কর কিছুটা হাল ধরলেও অন্যদের ব্যর্থতায় জয় অধরা রয়ে যায় হায়দ্রাবাদের।

মুম্বাই বোলারদের মধ্যে ট্রেন্ট বোল্ট ও রাহুল চাহার ৩টি করে উইকেট তুলে নেন। এছাড়া জসপ্রিত বুমরাহ ও ক্রুনার পান্ডিয়া একটি করে উইকেট ভাগ করে নেন।  

টস জিতে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে মুম্বাই। ৬.৩ ওভারে ৫৫ রান তোলেন দলের দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও রোহিত শর্মা। তবে নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি অধিনায়ক রোহিত। ২৫ বলে ২টি চার ও সমান ছক্কায় ব্যক্তিগত ৩২ রানে বিজয় শঙ্করের বলে আউট হন।

এরপর মুম্বাইর ব্যাটসম্যানরা ছোট ছোট জুটি গড়লেও আধিপত্য দেখায় হায়দ্রাবাদের বোলাররা। স্ট্রাইক বোলার ভুবেনেশ্বর কুমার ছাড়া বাকি সবাই কৃপণ বোলিং প্রদর্শন করেন। ডি কক সর্বোচ্চ ৪০ রান করে মুজিব উর রহমানের বলে ফেরেন। তবে দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটসম্যানকে খেলতে হয়েছে ৩৯টি বল। মেরেছেন ৫টি বাউন্ডারি। শেষদিকে কাইরন পোলার্ড ২২ বলে ঝড়ো ৩৫ রানে অপরাজিত থাকলেও অন্যরা নিজেদের মেলে ধর পারেনি।

হায়দ্রাবাদ বোলারদের মধ্যে আফগানিস্তান লেগস্পিনার মুজিব ও বিজয় ২টি করে উইকেট নেন। পেসার খালেদ আহমেদ একটি উইকেট দখল করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৫৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২১
এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa