ঢাকা, সোমবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭, ০১ মার্চ ২০২১, ১৭ রজব ১৪৪২

ক্রিকেট

অবিশ্বাস্য টেস্ট জিতে সিরিজ নিজেদের করে নিল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
অবিশ্বাস্য টেস্ট জিতে সিরিজ নিজেদের করে নিল ভারত

ব্রিসবেনে চতুর্থ ও শেষ টেস্টে ৩ উইকেটের অবিশ্বাস্য জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিল ভারত। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিন জয়ের জন্য ৩২৪ রান দরকার হলে, ৭ উইকেট হারিয়ে সফলতা পায় সফরকারীরা।

শুভমন গিল, চেতশ্বর পূজারা, ঋশভ পন্থের সঙ্গে ওয়াশিংটন সুন্দরের কার্যকরী ব্যাটিংয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় টিম ইন্ডিয়া। ফলে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল দলটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
অস্ট্রেলিয়া: ৩৬৯ ও ২৯৪
ভারত: ৩৩৬ ও ৩২৯/৭ (৯৭ ওভার, লক্ষ্য ৩২৮)
৩ উইকেটে জয়ী ভারত

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) গ্যাবায় টান টান উত্তেজনার শেষ দিন ওভারপ্রতি প্রায় সাড়ে ৩ রান করে তুলে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে ভারত। এতে অবশ্য গিল ও পন্থের সঠিক সময়ে আক্রমণ এবং পূজারার ধৈর্যশীল ব্যাটিং ফুটে উঠেছে। যেখানে প্রতিপক্ষের বোলার প্যাট কামিন্স ও নাথান লায়নরা ঘুরে দাঁড়ালেও শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠেননি।

এরই ফলে অজিদের দুর্গ খ্যাত ব্রিসবেনে আঘাত করল ভারত। কেননা এই মাঠে যে স্বাগতিকরা সেই ১৯৮৮ সালের পর কোনো টেস্ট হারেনি। সর্বশেষ সে বছরের নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে এই ভেন্যুতে ৯ উইকেটে হেরেছিল অস্ট্রেলিয়া।

ইনজুরি জর্জরিত ভারতের তরুণ এক দলের বিপক্ষেই হার মানলো অস্ট্রেলিয়া। প্রথম টেস্ট খেলে সন্তান জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকতে দেশে ফিরেছিলেন নিয়মিত অধিনায়ক ও ভারতের সেরা ক্রিকেটার বিরাট কোহলি। নেতৃত্ব আসে আজিঙ্কা রাহানের ওপর। তবে এরপর ইনজুরি দলটির কাঁধে ভর করে। একে একে দলের সেরা ফাস্ট ও স্পিন বোলিং বিভাগের সবাই চোটে পড়ে ছিটকে যান। এই তালিকায় ছিলেন মোহাম্মদ শামি, উমেশ যাদব, জসপ্রিত বুমরাহ, রবীচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজাদের মতো তারকারা।  

৩২৮ রানের লক্ষ্যে চতুর্থ দিন বিনা উইকেটে দলীয় ৪ রানে শেষ করা ভারত এদিন ১৮ রানেই প্রথম উইকেট হারায়। কামিন্সের শিকার হয়ে ব্যক্তিগত ৭ রানে ফেরেন রোহিত শর্মা। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে পূজারাকে নিয়ে ১১৪ রানের জুটি গড়েন তরুণ ওপেনার গিল। এই সিরিজেই অভিষেক হওয়া ডানহাতি গিল অবশ্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন। নাথান লায়নের বলে আউট হওয়ার আগে ৯১ রান করেন। তার ইনিংসটি ছিল ১৪৬ বলে ৮টি চার ও ২টি ছক্কায় সাজানো।

পূজারা নিজের স্বভাবসুলভ ব্যাটিং থেকে বের হননি। উইকেটে মাটি কামড়ে পড়েছিলেন। করেছেন ২১১ বলে ৫৬ রান। পরে কামিন্সে বলে এলবির ফাঁদে পড়েন তিনি। মাঝে সুবিধে করতে পারেননি অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে। ২২ বলে ২৪ করে তিনি কামিন্সের তৃতীয় শিকার হয়ে ফেরেন।

কিন্তু ম্যাচ সেরা হওয়া পন্থ আসল কাজটি করে যান। ছোট-বড় পাঁচটি জুটি গড়ে অপরাজিত থেকেই ভারতের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান পূজারার সঙ্গে ৬১ রানের জুটির পর মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে ৩৯ বলে ৩৭, সুন্দরের সঙ্গে ৫৫ বলে ৫৩ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। শেষ পর্যন্ত তিনি ১৩৮ বলে ৯টি চার ও একটি ৮৯ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন। এছাড়া ২৯ বলে ২২ রানের ইনিংস খেলা সুন্দর জয়ে দারুণ ভূমিকা রাখেন।

অজি বোলারদের মধ্যে কামিন্স সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট পান। দুটি উইকেট দখল করেন লায়ন। আর জস হ্যাজেলউড একটি উইকেট পান।

সর্বোচ্চ ২১ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরা হয়েছেন প্যাট কামিন্স।

অস্ট্রেলিয়া নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৬৯ রান করলে জবাবে ভারত ৩৩৬ রান করে। পরে অজিরা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯৪ রানে অলআউট হয়। যেখানে ৩২৯ করে জয় পায় ভারত।

এর আগে অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের পর মেলবোর্নে দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সমতায় ফেরে ভারত। সিডনিতে তৃতীয় টেস্টের ফলাফল আসেনি। তবে চতুর্থ টেস্ট জিতে সিরিজ ঘরে তুললো সফরকারীরা। এ নিয়ে অস্ট্রেলিয়া সফরে টানা দুটি টেস্ট সিরিজ জিতল ভারত।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa