ঢাকা, সোমবার, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৬ রবিউস সানি ১৪৪২

ক্রিকেট

সুমন-লিটনের নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়ন মাহমুদউল্লাহ একাদশ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২০
সুমন-লিটনের নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়ন মাহমুদউল্লাহ একাদশ মাহমুদউল্লাহ একাদশের শিরোপা উদযাপন। ছবি: শোয়েব মিথুন

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। ফাইনালে নাজমুল একাদশকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহরা।

 

রোববার (২৫ অক্টোবর) মিরপুরে আগে ব্যাট করে ইরফান শুক্কুরের অর্ধশতকে মাত্র ১৭৩ রানে অলআউট হয় নাজমুল একাদশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে লিটন দাস ও ইমরুল কায়েসের অর্ধশতকে ২০ ওভার হাতে রেখে সহজ জয় তুলে নেয় মাহমুদউল্লাহ একাদশ।  

জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ছেন মাহমুদউল্লাহ-ইমরুল।  ছবি: শোয়েব মিথুন

১৭৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ব্যক্তিগত ৪ রানে আউট হন মুমিনুল হক। তবে এরপর আর দলকে চাপে পড়তে দেননি লিটন দাস। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে মাহমুদুল হাসান জয়কে সঙ্গে নিয়ে ৪৮ রানের জুটি গড়েন তিনি। মাহমুদুল ১৮ রান করে আউট হন।

লিটন দাশের ফিফটি উদযাপন।  ছবি: শোয়েব মিথুন

অপর প্রান্তে অর্ধশতক তুলে নেন লিটন। ইমরুলকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৫০ রানের জুটি গড়ে দলের জয়ের পথ সহজ করে দেন তিনি। লিটন দলীয় ১২৯ রানে ৬৮ রান করে আউট হলে ভাঙে ৬৩ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি।

জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ছেন মাহমুদউল্লা-ইমরুল।  ছবি: শোয়েব মিথুন

এরপর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও ইমরুল জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন। ২৯.৪ বলে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান তোলে মাহমু্দউল্লাহ একাদশ। ইমরুল ৫৩ ও মাহমুদউল্লাহ ২৩ রানে অপরাজিত থাকেন।

শট খেলার পথে ইমরুল।  ছবি: শোয়েব মিথুন

নাজমুল একাদশের হয়ে নাসুম আহমেদ ২টি ও আল আমিন হোসেন ১টি উইকেট নেন।  

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই সাইফ হাসানের (৪) উইকেট হারায় নাজমুল একাদশ। ব্যক্তিগত ৫ রানের মাথায় রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান সৌম্য সরকার।  

ক্রিজে এসে সুবিধা করতে পারেননি অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমও। ৩৭ বলে ১২ রান করে আউট হন তিনি। । এরপর ফের ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যর্থতার পরিচয় দেন সৌম্য। সেই ৫ রান নিয়েই আউট হন তিনি। নাজমুল হোসেন শান্ত (৩২) ও আফিফ হোসেন (০) ফিরে গেলে ৬৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে নাজমুল একাদশ।

হৃদয়ের সঙ্গে শুক্কুরের জুটি।  ছবি: শোয়েব মিথুন

ইরফান শুক্কুর ও তৌহিদ হৃদয় ষষ্ঠ উইকেটে ৭০ রানের জুটি গড়ে সেই চাপ ভালোভাবে সামাল দেন। ব্যক্তিগত ২৬ রান করে হৃদয় সাজঘরে ফিরলে ভাঙে এই জুটি। তবে অন্য প্রান্তে লড়াই করে অর্ধ-শতক তুলে নেন ইরফান। দলের রানের চাকা সচল রাখেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৭৫ রান করেন শুক্কুর। শেষ পর্যন্ত ৪৭.১ ওভারে ১৭৩ রানে অলআউট হয় নাজমুল একাদশ।  

আউটের আবেদন জানাচ্ছেন সুমন।  ছবি: শোয়েব মিথুন

মাহমুদউল্লাহ একাদশের হয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন সুমন। এছাড়া রুবেল হোসেন নেন ২ উইকেট। একটি করে উইকেট ভাগাভাগি করেন  এবাদত হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।  

মাঠ উইকেট নিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে মাঠ ছাড়ছেন সুমন।  ছবি:শোয়েব মিথুন

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২০
আরএআর/ইউবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa