ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

রাজস্থানের তিনে তিন, শূন্য মুম্বাই

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০০৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ২, ২০২৪
রাজস্থানের তিনে তিন, শূন্য মুম্বাই

গুজরাট টাইটান্সকে চড়া মূল্য দিয়ে ঘরের ছেলেকে ঘরে ফেরায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। শুধু তা-ই নয়, তার হাতেই তুলে দেওয়া হয় নেতৃত্বের ভার।

সেই হার্দিক পান্ডিয়া কেবল হতাশই করে যাচ্ছেন। চলতি মৌসুমে তিন ম্যাচ খেলে এখনো জয়ের স্বাদ এনে দিতে পারেননি দলকে। আজ ঘরের মাঠেও রাজস্থান রয়্যালসের কাছে হারতে হয়েছে ৬ উইকেটের ব্যবধানে। এই ম্যাচেও দুয়ো শুনতে হয়েছে তাকে।  

মুম্বাইয়ের একদমই  বিপরীত চিত্র রাজস্থান শিবিরে। তিন ম্যাচের তিনটিতেই জয় তুলে নিয়েছে তারা। যা তাদের এনে দিয়েছে টেবিলের শীর্ষে বসার সুযোগ। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ম্যাচের প্রথম ওভার থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ রাজস্থানের কাছে রাখেন ট্রেন্ট বোল্ট। ২২ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার। তার বলে আউট হওয়া তিনজনই অবশ্য গোল্ডেন ডাক মেরেছেন।  

বোল্ট তার ধ্বংসযজ্ঞের শুরুটা করেন রোহিত শর্মাকে দিয়ে। ওভারের পঞ্চম বলটি ডিফেন্স করতে গিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দেন রোহিত। পরের বলে নামান ধীরকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন বোল্ট। তৃতীয় ওভারে বাঁহাতি এই পেসারকে ড্রাইভ করতে গিয়ে শর্ট থার্ডম্যানে ধরা পড়েন ডেওয়াল্ড ব্রেভিস।

বোল্টের এনে দেওয়া স্বপ্নের শুরুর পর মুম্বাইকে চাপের মধ্যেই রাখেন নান্দ্রে বার্গার ও যুজবেন্দ্র চাহাল। যার ফলে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৫ রানের বেশি করতে পারেনি মুম্বাই। সর্বোচ্চ ৩৪ রান করেন অধিনায়ক পান্ডিয়া। রাজস্থানের চাহাল ১১ রানে তিনটি ও ৩২ রান দিয়ে দুটি  উইকেট শিকার করেন বার্গার।

তাড়া করতে গিয়ে খুব একটা ঘাম ঝরাতে হয়নি রাজস্থানকে। আগের দুই ম্যাচের মতো এবারও হাল ধরেন রিয়ান পরাগ। ৩৯ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় অপরাজিত ৫৪ রানের দারুণ ইনিংসে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান এই ব্যাটার। সেটাও ২৭ বল বাকি থাকতে। মুম্বাইয়ের হয়ে আকাশ মাধওয়াল ২০ রানে ৩ উইকেট নিলেও বাকি বোলাররা ছিলেন নিষ্প্রভ।

বাংলাদেশ সময়ঃ ০০০২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২, ২০২৪

এএইচএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।