ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

ক্রিকেট

সাদা বলের ক্রিকেটে ফের পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫২ ঘণ্টা, মার্চ ৩১, ২০২৪
সাদা বলের ক্রিকেটে ফের পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর

ফের নেতৃত্বে বদল আনলো পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এবার সাদা বলের ক্রিকেটে পাকিস্তানের অধিনায়ক হয়ে ফিরলেন বাবর আজম।

 

আজ রোববার পিসিবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম 'এক্স-এ পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে দলের অধিনায়ক হিসেবে বাবর আজমের নাম ঘোষণা করেছে। তার নেতৃত্বেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে পাকিস্তান দল।

মূলত নতুন নির্বাচক কমিটির পরামর্শেই বাবরকে নেতৃত্বে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেন পিসিবির চেয়ারম্যান মহসিন নকভী। পিসিবি বাবর ও নকভীর মধ্যকার বৈঠকের ভিডিও প্রকাশ করেছে।  

২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক হন বাবর। এরপর ২০২০ সালে টেস্ট ও ওয়ানডে দলের নেতৃত্বেও আনা হয় তাকে। কিন্তু গত বছরের নভেম্বরে ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে ব্যর্থতার জেরে সরে দাঁড়ান বাবর। তার বদলে টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক হন শাহিন শাহ আফ্রিদি এবং টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব পান শান মাসুদ। তবে ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে স্থায়ী কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি।

পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম 'ডন' জানিয়েছে, নতুন নির্বাচক কমিটি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে অধিনায়ক হিসেবে বাবরকে আনার চেষ্টা করছিল। এমনকি পিসিবির পক্ষ থেকে তিন ফরম্যাটের জন্যই বাবরকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু পাকিস্তানের অন্যতম সেরা এই ব্যাটার কিছু শর্ত জুড়ে দেন। সেই শর্তগুলো নিয়েই পিসিবির চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন তিনি। এরপরই আসে নতুন সিদ্ধান্ত।

এদিকে বাবরকে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের অধিনায়ক করায় পিসিবি ভেতরে এবং জাতীয় দলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। অনেকের মতে, শাহিনকে অন্তত টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্বে রাখা উচিত ছিল। বাঁহাতি পেসার শাহিনের অবস্থানও দলে বেশ শক্ত। ফলে তাকে পুরোপুরি অবহিত না করেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ায় দলে বিভক্তির শংকা প্রকাশ করছেন অনেকে।  

আরও একটি বিষয় নিয়ে পিসিবির ভেতরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সম্প্রতি অবসর ভেঙে ফেরা মোহাম্মদ আমির ও ইমাদ ওয়াসিমের সঙ্গে বাবরের সম্পর্ক ভালো নয়। দুজনেই বাবরের নেতৃত্বের সমালোচনা করেছেন অতীতে। যদিও কিছুদিন আগেই পিসিবি চেয়ারম্যানের ডাকে অবসর ভেঙেছেন তারা দুজনেই। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তাদের খেলার সম্ভাবনা আছে। কিন্তু বাবর নেতৃত্বে ফেরায়, এ নিয়েও জটিলতা দেখা দিতে পারে।

বাবর শুধু নেতৃত্বে নয়, থাকবেন নির্বাচক কমিটিতেও। যেখানে তার সঙ্গে থাকবেন সাবেক ক্রিকেটার আসাদ শফিক, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ ইউসুফ, আব্দুল রাজ্জাক ও ডাটা অ্যানালিস্ট বিলাল আফজাল। আমির ও ইমাদের দলে সুযোগ পাওয়া এই কমিটির ওপর নির্ভর করছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১১৫২ ঘণ্টা, মার্চ ৩১, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।