ঢাকা, সোমবার, ২ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

ক্রিকেটের জন্য বিজেপির রাজনীতি ছাড়ছেন গম্ভীর

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৭ ঘণ্টা, মার্চ ২, ২০২৪
ক্রিকেটের জন্য বিজেপির রাজনীতি ছাড়ছেন গম্ভীর

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়ার পর গৌতম গম্ভীর আইপিএল চালিয়ে যাচ্ছিলেন নিয়মিতই। কিন্তু একসময় সেখান থেকেও নিজেকে গুটিয়ে নেন বিশ্বকাপজয়ী সাবেক ভারতীয় ওপেনার।

যোগ দেন সক্রিয় রাজনীতিতে। শুধু যোগ দিয়েই বসে থাকেননি তিনি, নির্বাচনে জিতে যান পার্লামেন্টেও।  

তবে সম্প্রতি ক্রিকেটের সঙ্গে দূরত্বটা কমিয়ে আনার চেষ্টা করছেন গম্ভীর। ধারাভাষ্যকার থেকে আইপিএলে মেন্টর হিসেবে দেখা যায় তাকে। এবার ক্রিকেটের সঙ্গে পুরনো এই সম্পর্কটাকে আরও এগিয়ে নেওযার সিদ্ধান্ত পাকাপাকিভাবেই নিয়েছেন তিনি। জানিয়ে দিয়েছেন, সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে যাচ্ছেন তিনি। আপাতত মনোযোগ দিতে চান ক্রিকেটেই।  

২০১৯ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে পূর্ব দিল্লি থেকে নির্বাচিত সাংসদ গম্ভীর নিজ দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কাছে তাকে রাজনৈতিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদানের আবেদন জানিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে নিজের 'এক্স' (সাবেক টুইটার) হ্যান্ডলে তিনি লিখেছেন, 'পার্টি (বিজেপি) প্রেসিডেন্ট জেপি নাড্ডা মহোদয়কে আমি অনুরোধ জানিয়েছি যেন আমাকে রাজনৈতিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। যাতে ক্রিকেট নিয়ে আমার প্রতিশ্রুতিগুলো পূরণের দিকে মনোযোগ দিতে পারি পারি। '

'মানুষের সেরা করার সুযোগ দেওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজি এবং মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহজিকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। জয় হিন্দ!'

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ভারতের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে গম্ভীরের দলীয় টিকিট না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি ছিল। শিগগিরই ১০০ জনের বেশি মনোনীত প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করবে বিজেপি। যেখানে গম্ভীরের নির্বাচনী আসনে অন্য কারও নাম থাকার কথা শোনা যাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, এ কারণেই রাজনীতি থেকেই সরে দাঁড়াচ্ছেন সাবেক এই বাঁহাতি ব্যাটার।  

'এনডিটিভি' জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার দিল্লিতে অবস্থিত ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব 'ম্যারাথন' বৈঠকে বসেন। এরপর খবর ছড়িয়ে পড়ে এবার আর মনোনয়ন পাবেন না গম্ভীর। এবার নিজেই সরে গিয়ে সেই খবরকেই যেন মান্যতা দিলেন তিনি।

২০১৯ সালের মার্চে বিজেপিতে যোগ দেন গম্ভীর। এরপর দিল্লির রাজনীতিতে বেশ পরিচিত মুখ হয়ে উঠেন তিনি। ওই বছরের লোকসভা নির্বাচনে নিজের আসন থেকে ৬ লাখ ৯৫ হাজার ১০৯ ভোট পেয়ে জেতেন তিনি। এরপর রাজনীতিতে তাকে বেশ সক্রিয় ভূমিকাতেই দেখা গেছে। জাতীয় স্বার্থ নিয়ে অনেকবার উচ্চকণ্ঠ হতে দেখা গেছে তাকে। অবশ্য খেলোয়াড় জীবনের মতো রাজনীতিতেও বিতর্কও পিছু ছাড়েনি তার।  

এদিকে ২০২৪ আইপিএল নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় কাটছে গম্ভীরের। এবার তিনি নিজের সাবেক ফ্র্যাঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্সের মেন্টরের দায়িত্ব সামলাবেন। তার নেতৃত্বেই কলকাতা দুইবার আইপিএল শিরোপা ঘরে তোলে। গত আসরে অবশ্য তাকে দেখা গেছে লখনৌ সুপার জায়ান্টসের মেন্টর হিসেবে।

জাতীয় দলের জার্সিতে দারুণ সফল ছিলেন গম্ভীর। ভারতের ২০০৭ টি-টোয়েন্টি ও ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল তার। টিম ইন্ডিয়ার জার্সিতে ২৪২ ম্যাচ খেলে ১০ হাজার ৩২৪ রান করেছেন তিনি; ব্যাটিং গড় ৩৮.৯৫। তার নামের পাশে আছে ২০টি সেঞ্চুরি ও ৬৩টি হাফ-সেঞ্চুরি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।