ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক লিপু, আছেন হান্নান ও রাজ্জাক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক লিপু, আছেন হান্নান ও রাজ্জাক

দীর্ঘদিন ধরেই জাতীয় দলের নির্বাচক প্যানেল নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত আর মেয়াদ বাড়ছে না প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমনের।

তাদের বদলে এখন প্রধান নির্বাচক করা হয়েছে গাজী আশরাফ হোসেন লিপুকে। এছাড়া তাদের সঙ্গে থাকবেন হান্নান সরকার ও আব্দুর রাজ্জাক। সোমবার বোর্ড সভাশেষে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।  

গত বছরের ডিসেম্বরে আগের নির্বাচক প্যানেলের চুক্তি শেষ হয়। এরপর বোর্ডের চাওয়াতে এতদিন ধরে কাজ করছিলেন তারা। এখন আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচক প্যানেল থেকে ইতি ঘটলো। যদিও বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, সুবিধাজনক জায়গায় চাকরি দিয়ে বিসিবিতেই রাখা হবে নান্নু ও সুমনকে।

নতুন করে দায়িত্ব পাওয়া গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বিসিবির সাবেক পরিচালক, ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান এবং বিপিএল গভর্নিং বডির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন জাতীয় দলের অধিনায়কও।   তাকে প্রধান নির্বাচক করার কারণ জানতে চাওয়া হয় বিসিবি সভাপতির কাছে।
 
এ নিয়ে পাপন বলেন, ‘বোর্ড এপ্রিশিয়েট করেছে আমাদের ক্রিকেটে তাদের অবদান। এবং আমরা সকলে একবাক্যে স্বীকার করেছি আমরা খুবই খুশি তাদের অবদানে। কিন্তু আমরা তাদেরকে হারাতেও চাই না। এজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা তাদেরকে বোর্ডের অন্য সুইটেবল পজিশনে দুজনকেই রাখবো। ’

তিনি বলেন, ‘যে কয়েকটা নাম এসেছে আমাদের কাছে। এদের মধ্যে উনার নামটা দেখার পর আসলে খুব একটা সংশয় আমাদের মধ্যে ছিল না। আমরা মনে করেছি যে কয়েকটা নাম প্রস্তাব করা হয়েছে আমাদের ভেতর। যদি উনি আসতে রাজি হন, আমরা মনে করেছি উনি সেরা। ’ 

‘সেজন্য এটা নিয়ে খুব একটা তর্ক হয়নি। কথাটা ছিল উনি আসতে চান কি না বা রাজি আছেন কি না। যখন আমরা কনফার্মেশন পেলাম রাজি আছে, তখন একবাক্যে সবাই স্বীকার করে নিলাম উনাকে আমরা করবো। ’ 

বাংলাদেশ সময় : ১৯৩৫ ঘণ্টা, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
এমএইচবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।