ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

হ্যাটট্রিক করে বিপিএলের এলিট ক্লাবে শরিফুল

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২৪
হ্যাটট্রিক করে বিপিএলের এলিট ক্লাবে শরিফুল

পর্দা উঠেছে দশম বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল)। আসরের প্রথম ম্যাচেই দেখা মিলেছে হ্যাটট্রিকের।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে হ্যাটট্রিকটি করে বিপিএলের এক এলিট ক্লাবের সদস্য হয়েছেন দুর্দান্ত ঢাকার পেসার শরিফুল ইসলাম।  

আজ শুক্রবার শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকার মুখোমুখি হয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আগে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার দলীয় ২৩ রানে ওপেনার লিটন দাসের উইকেট হারায় কুমিল্লা। কিন্তু আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস ও তিনে নামা তাওহীদ হৃদয় মিলে দারুণ এক জুটি গড়েন।  

আসরের ফিফটি তুলে নেওয়া ইমরুল শেষ পর্যন্ত ৫৬ বলে করেন ৬৬ রান। তাওহীদ হৃদয়ের ব্যাট থেকে আসে ৪১ বলে ৪৭ রান। দুজনকেই ১৯তম ওভারে বিদায় করেন পেসার তাসকিন আহমেদ।

শেষ ওভারে শরিফুলের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে ছক্কা হাঁকান পাকিস্তানি ব্যাটার খুশদিল শাহ। তবে পরের তিন বলেই তিন উইকেট তুলে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ঢাকা। চতুর্থ বলে খুশদিল তুলে মারতে গিয়ে শর্ট থার্ড-ম্যান অঞ্চলে থাকা তাসকিন আহমেদের হাতে ক্যাচ দেন।  

পরের বলে শরিফুলে শিকার করেন রোস্টন চেজের উইকেট। শরিফুলের অফসাইডের বাইরের শর্ট বলে পুল শট খেলতে চেয়েছিলেন ক্যারিবীয় ব্যাটার চেজ। কিন্তু বল উপরে উঠে গেলে ডিপ মিড অঞ্চল থেকে অনেকটা দৌড়ে গিলে তালুবন্দি করেন নাঈম শেখ। শেষ বলটি ছিল স্লোয়ার। যা মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনের ব্যাট ছুঁয়ে জমা হয় উইকেটরক্ষক ইফরান শুক্কুরের হাতে।

সবমিলিয়ে বিপিএলের ইতিহাসে সপ্তম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিকের দেখা পেলেন শরিফুল। ২০১২ বিপিএলে প্রথম হ্যাটট্রিক করেন মোহাম্মদ সামি। দুরন্ত রাজশাহীর হয়ে খেলা এই সাবেক পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার সেদিন ঢাকা গ্ল্যাডিয়টর্সের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেন। বাকি ছয় বোলার হলেন- 

* আলআমিন হোসেন (বরিশাল বুলস) - প্রতিপক্ষ সিলেট সুপারস্টারস (২০১৫)
* আলিস আল ইসলাম (ঢাকা ডায়নামাইটস) - প্রতিপক্ষ রংপুর রাইডার্স (২০১৯)
* ওয়াহাব রিয়াজ (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস) - প্রতিপক্ষ খুলনা টাইটানস (২০১৯)
* আন্দ্রে রাসেল (ঢাকা ডায়নামাইটস) - প্রতিপক্ষ চিটাগং ভাইকিং (২০১৯)
* মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স) - প্রতিপক্ষ সিলেট সানরাইজার্স (২০২২)
* শরিফুল ইসলাম (দুর্দান্ত ঢাকা) - প্রতিপক্ষ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স (২০২৪)

শরিফুলের শেষের ওই বিধ্বংসী বোলিংয়ের পর ৬ উইকেটে ১৪৩ রানে থামে কুমিল্লার ইনিংস। জবাবে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৬.২ ওভারে বিনা উইকেটে ৬০ রান তুলেছে ঢাকা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।