ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

ক্রিকেট

দেশের ক্রিকেটে ইতিহাস গড়ার সুর চট্টগ্রামে

মাহমুদুল হাসান বাপ্পি, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৯, ২০২২
দেশের ক্রিকেটে ইতিহাস গড়ার সুর চট্টগ্রামে


চট্টগ্রাম থেকে : জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের তোড়জোড় তখনও দৃশ্যমান। ধুলো উড়ছে, পানি ঠিকঠাক দেওয়া হয়নি কেন জানতে চাইছেন দায়িত্বশীল কেউ।

ব্যানারের কাঠে টুকটুক আওয়াজ হচ্ছে- চলছে শেষ মুহূর্তের আয়োজন। দর্শকদের লম্বা লাইন টিকিটের জন্য, এমন খবরও ভেসে আসছে।

সব প্রস্তুতির আয়োজনের মঞ্চ এক- কখনো বাংলাদেশ করেনি যা, দেখার প্রত্যাশা তেমন কিছুর। ইতিহাস গড়ার সুর বাজছে দেশের ক্রিকেটে। ভারতকে প্রথমবারের মতো হোয়াইটওয়াশ করার হাতছানি সামনে। এর আগে অবশ্য ব্যাট-বলের আওয়াজ থাকলো না ততটা। সাগরিকার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এলেন হাতে গোণা কয়েকজন ক্রিকেটার।

মাঠের দুই পাশের উইকেটে পালা বদল করে ব্যাট হাতে নিলেন তারা। নেট বোলাররাই সেখানে সরব, ছিলেন তাসকিন আহমেদও। যদিও তার থাকা নিয়ে নিশ্চয়তা নেই ততটা, আগের দুই ম্যাচেও ইনজুরির কারণে ছিলেন না তিনি। তবে পেসারদের জন্য উইকেট আগের দিন অবধি ছিল উর্বর। পুরোটাতেই ছিল বড় ঘাস।

জহুর আহমেদে সকাল গড়িয়ে দুপুর হয়ে বিকেল নেমেছে। মাঠে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররাও; তাদের অবস্থাও অবশ্য একই। ঐচ্ছিক অনুশীলনে ছিলেন না বলতে গেলে বড় তারকাদের কেউ। দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসেছেন ওয়াশিংটন সুন্দর।  

দুবার সূচি বদলেও ঘণ্টাখানেক দেরিতে এসে তিনি বলেছেন শেষ ম্যাচে দলের প্রত্যাশার কথা, ‘আমরা জিততে চাই। আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে চাই। কিছু ব্যাপার আমাদের করতে হবে। প্রসেসে মনোযোগ দেবো। এবং ম্যাচটা জিতে ওয়ানডে সিরিজটা ভালোভাবে শেষ করতে চাই। ’

তার আগেই সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন বাংলাদেশ দলের ফিল্ডিং কোচ শেন ম্যাকডরমট। মাঠে তার ব্যস্ততা আটকে ছিল কেবল সৈয়দ খালেদ আহমেদে। টেস্ট দলে থাকা পেসারকে বেশ কিছুক্ষণ করিয়েছেন অনুশীলন। পরে সংবাদ সম্মেলনে এসে তিনি জানালেন, ভারতকে হোয়াইটওয়াশের সুযোগ ‘রোজ রোজ’ আসে না। তারা তাই ‘ভারহীন’ নন।

শেনের কথাগুলো ছিল এমন, ‘কাজ এখনো শেষ হয়নি। আমরা জানি দল হিসেবে আমরা কিছু সাফল্য পেয়েছি। কিছু ব্যর্থতাও আছে। কিন্তু আমরা কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচকে হালকাভাবে নেই না। আমরা প্রথম ম্যাচের পর সেটাকে পেছনে ফেলে এসেছে দ্বিতীয় ম্যাচটি জিতেছি। বাংলাদেশ কখনো ভারতকে ৩-০ ব্যবধানে হারায়নি। এটাই এই মুহূর্তে আমাদের সবচেয়ে বড় লক্ষ্য। ’

ম্যাকডরমটের কথায় স্বপ্ন বোনা। মাঠে বাস্তব রূপ দিতে হবে ক্রিকেটারদেরই। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সন্ধ্যা নেমে আসে, থাকে কৃত্তিম আলোও। কাল দেশের ক্রিকেটাররা ‘জ্বলে’ উঠলে ইতিহাসই গড়া হবে। দেশে নানা খেলার আলোচনার ভিড়ে; চট্টগ্রামে সেই সুরই বাজছে আপাতত।

বাংলাদেশ সময় : ১৮১৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৯, ২০২২
এমএইচবি/এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa