ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

কর্পোরেট কর্নার

ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেডের ৪৯তম এজিএম

বিজনেস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫২ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২২
ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেডের ৪৯তম এজিএম

ঢাকা: ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেডের ৪৯তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

মঙ্গলবার (১৭ মে) সভায় শেয়ারহোল্ডাররা বিগত বছরের (২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত) ডিরেক্টর’স রিপোর্ট, অডিটর’স রিপোর্ট ও অডিটেড অ্যাকাউন্টস অনুমোদন করেছেন এবং এতে প্রতি ১০ টাকার সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে ৪৪০ শতাংশ বা প্রায় ৪৪ টাকা নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।


গত বছর ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ারের আয় বেড়েছে ১৯ দশমিক ৪ শতাংশ, যেখানে
মোট মুনাফা (গ্রোস প্রফিট) হচ্ছে ২০ দশমিক ৬ শতাংশ।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশনের নির্দেশনা অনুসরণ করে ধারাবাহিকভাবে এবার তৃতীয়বারের মতো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কোম্পানির চেয়ারম্যান মাসুদ খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির ম্যানেজিং ডিরেক্টর কে এস এম মিনহাজ। অন্য ডিরেক্টরদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন জাহিদুল ইসলাম মালিতা, এস ও এম রাশেদুল কাইউম, মো. আবুল হোসাইন, মোহসিন উদ্দিন আহমেদ, রেজাউল হক চৌধুরী।

এছাড়া কোম্পানি সেক্রেটারি মোহাম্মদ নাহারুল ইসলাম মোল্লা, কোম্পানির স্ট্যাচুটরি অডিটর ও সিনিয়র ম্যানেজমেন্টসহ বেশ কয়েকজন শেয়ারহোল্ডারও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে সভায় অংশগ্রহণ করেন।

ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেডের চেয়ারম্যান মাসুদ খান বলেন, ‘২০২১ সালে আমরা কোম্পানির ব্যয় প্রশমন, প্রযুক্তি উদ্ভাবন, ভোক্তা চাহিদা উপলব্ধি ও বাজার ঘনিষ্ঠতা গভীরভাবে বুঝতে কৌশলগত সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ভোক্তাদের জন্য পুষ্টি উপাদান নিশ্চিত করতে আমরা মূল হরলিক্স ও জুনিয়র হরলিক্স এর প্যাক সহজলভ্য করেছি।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য-সুরক্ষা কোম্পানি হিসেবে ভোক্তাদের কল্যাণকে ঘিরেই আমাদের ব্যবসায়িক ভাবনা আবর্তিত হয়েছে এবং সেই সঙ্গে ক্ষুধামুক্ত পৃথিবী গড়ার পাশাপাশি সবার জন্য স্বাস্থ্য ও কল্যাণ নিশ্চিত করতে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে অবদান রাখা-ই আমাদের মূল লক্ষ্য। স্থানীয়ভাবে প্রতিটি শ্রেণির মানুষের জন্য উপযুক্ত পণ্য সরবরাহের মাধ্যমে সমস্যা সমাধান করতে আমরা বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছাতে চাই। সব পর্যায়ের জনগোষ্ঠীর কাছে ভারসাম্যপূর্ণ ও যথাযথ পুষ্টিপণ্য নির্বঘ্নে সরবরাহ করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা বিশ্বাস করি, টেকসই বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য বৈষম্যহীন ও সুন্দর একটি সমাজব্যবস্থা গড়ে তুলতে অবশ্যই জাতির পুষ্টি চাহিদা পূরণ করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫২ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২২
আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa