bangla news

জীবননগরে ধরা পড়লো বিলুপ্তপ্রায় বাঘডাশা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০৩-০৪ ৯:৪০:৩৬ এএম

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার সেনেরহুদার দিগড়ির বিল এলাকা থেকে বিলুপ্তপ্রায় একটি বাঘডাশাকে আটক করেছে বিলের পাহারাদারেরা।

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার সেনেরহুদার দিগড়ির বিল এলাকা থেকে বিলুপ্তপ্রায় একটি বাঘডাশাকে আটক করেছে বিলের পাহারাদারেরা।

শনিবার রাত ১১টার দিকে মেছো বাঘ ভেবে বাঘডাশাটি ধরা হয়। পরে রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে প্রাণীটি চুয়াডাঙ্গার শিশুস্বর্গ পার্কে রাখা হয়েছে।

বিলের পাহারাদার সিরাজুল ইসলাম ও শাহাজাহান বিশ্বাস বাংলানিউজকে জানান, জীবননগরের উথলী ইউনিয়নের সেনেরহুদার দিগড়ির বিল পাহারা দেওয়ার সময় রাত ১১টার দিকে একটি বাঘডাশা বিলের কাছে এলে তারা এটিকে মেছো বাঘ ভেবে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন।

পরে রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাঘডাশাটি চুয়াডাঙ্গা ফেরিঘাট রোডে অবস্থিত শিশুস্বর্গ পার্ক কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেন তারা।

এদিকে, বাঘডাশাটি মেরে না ফেলায় অনেকেই বিল পাহারাদারদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে চুয়াডাঙ্গার সচেতন মহল বিলুপ্তপ্রায় বাঘডাশাটি সংরক্ষণের জন্য জেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। একই সঙ্গে আহত প্রাণীটির চিকিৎসার ব্যবস্থা করারও দাবি জানিয়েছেন তারা।

মেছো বাঘ মনে করে বাঘডাশাটি আটক করলেও পরে অভিজ্ঞ কয়েকজন প্রাণীটি দেখে এটি বাঘডাশা বলে সনাক্ত করেছেন।

এক সময় বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এ প্রজাতির বাঘডাশার বিচরণ ছিল। কিন্তু বনাঞ্চল ও ঝোপঝাড় ধ্বংস, অপরিকল্পিত নগরায়ন এবং এসব প্রাণীর ওপর মানুষের অত্যাচারের ফলে দিন দিন বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে বাঘডাশা।
ইদানীং প্রায়ই চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের বিভিন্ন এলাকায় ধরা পড়ে বাঘডাশা। কিন্তু অসচেতনতার কারণে এদের নির্বিচারে হত্যা করা হয়। বিষয়টি দেখা প্রাণিসম্পদ বিভাগের দায়িত্ব হলেও তারাও থাকে নির্বিকার।

ফলে বাংলাদেশ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী। এতে বাস্তুতন্ত্রের (ইকোসিস্টেম) ওপর বিরুপ প্রভাব পড়ছে। যা পরিবেশের বিপর্যয় ঘটাতে পারে বলে আশঙ্কা সচেতন মহলের।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৩ ঘণ্টা, মার্চ ০৪, ২০১২

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2012-03-04 09:40:36