ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

সর্বনিম্ন তাপমাত্রার বিশ্লেষণে ‘জানুয়ারি ২০২২’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২২
সর্বনিম্ন তাপমাত্রার বিশ্লেষণে ‘জানুয়ারি ২০২২’ শীতের শহর শ্রীমঙ্গলে চোখ মেলেছে সূর্য। ছবি: বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন

মৌলভীবাজার: জানুয়ারি মাসটি ছিল পৌষ আর মাঘের পরশে রাঙা। শীতের তীব্র দাপট তেঁতুলিয়া, শ্রীমঙ্গলসহ পুরো দেশকে কাবু করে রেখেছিল।

এর ধারাবাহিকতা অবশ্য এখনো চলমান। এখনো কুয়াশা ঢাকা প্রকৃতিতে অনুভূত হচ্ছে কনকনে শীতের উপস্থিতি। তবে, এসবই বিদায়ী শীতের অবশিষ্ট হিমপরশ।  

এদিকে, মাস শেষান্তে আশ্চর্যজনকভাবে দেখা মেলেছে মাঘে আর মেঘে! যা অন্য এক কাব্যিক মুখরায় রাঙা! বৃষ্টির বিরামহীন ধারায় বাংলার প্রকৃতি ভরে উঠেছে। কৃষিজাত পণ্য উৎপাদনের সম্ভাবনায় সুবিধা এবং অসুবিধা দুটোই নিয়ে এসেছিল এই অকাল বর্ষণ।

দেশের কোনো কোনো স্থানে কোন দিন তীব্র শীত, কী পরিমাণ বৃষ্টি ইত্যাদি তথ্যাবলি নিয়েই জানুয়ারি-২০২২ মাসের তাপমাত্রা বিশ্লেষণ।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারির মধ্যে মোট ২০ দিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড তালিকাভুক্ত হয়ে ‘প্রথম স্থান’ ধরে রেখেছে রংপুর বিভাগের তেঁতুলিয়াতে। এখানে ৩১ জানুয়ারি চলতি শীত মৌসুমের দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ধরা পড়েছে ৬ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলমিয়াস। অর্থাৎ নভেম্বর-২০২১ থেকে জানুয়ারি-২০২২ এই শীত মৌসুমে দেশের কোথায় আরো এই তাপমাত্রা ধরা পড়েনি। তবে, এর কাছাকাছি অবস্থানে ছিল ওই একই বিভাগের রাজারহাট। সেখানে ২৮ জানুয়ারি ৬ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলমিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

সূত্র আরও জানায়, জানুয়ারির সর্বনিম্ন তাপমাত্রার তালিকায় ‘দ্বিতীয় স্থান’ অর্জনে রয়েছে সিলেট বিভাগের শ্রীমঙ্গল। এখানে মোট ৩ দিন দেশের সর্বতাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। সেই দিনগুলো- ২ জানুয়ারি ৯ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ১০ জানুয়ারি ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, এবং ২৩ জানুয়ারি ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে, ২৩ জানুয়ারি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডতেও তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়াও ‘দ্বিতীয় স্থান’ আরও একটি অঞ্চল ধরে রেখেছে। সেটা হলো- রাজশাহী বিভাগের বদলগাছী। ৩ জানুয়ারি ১০ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস, ৬ জানুয়ারি ১০ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, এবং ২১ জানুয়ারি ৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বদলগাছীতে রেকর্ড করা হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ আফরোজা সুলতানা বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনগত কারণে শীতকালেও বৃষ্টি শুরু হয়েছিল। গত ২৪ জানুয়ারি বৃষ্টি শুরু হয়ে চলে ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। তবে, সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে ২৭ জানুয়ারি। সারা দেশের মধ্যে ২৭ জানুয়ারি ২৪ ঘণ্টায় শ্রীমঙ্গলেই দেশের সর্বোচ্চ পরিমাণ ১৭ মিলিমিটার বৃষ্টির রেকর্ড করা হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মাদারীপুর, সেখানে ১২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রংপুরের তেঁতুলিয়াতে, ৭ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শ্রীমঙ্গলের ১০ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং বদলগাছীতে রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বর মাসেও প্রথম স্থানটি ধরে রেখেছিল রংপুরের তেঁতুলিয়া। ৩১ দিনের মধ্যে মোট ২৮ দিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল এখানে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২২
বিবিবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa