ঢাকা, সোমবার, ২ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

চা-শিল্পাঞ্চলে ‘সেপ্টেম্বর’ বৃষ্টিপাত বছর-মাস বিবেচনায় কমেছে

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ৫, ২০২১
চা-শিল্পাঞ্চলে ‘সেপ্টেম্বর’ বৃষ্টিপাত বছর-মাস বিবেচনায় কমেছে মেঘাচ্ছন্ন চা বাগানের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: সিলেট বিভাগের চা-শিল্পাঞ্চলে কমে গেছে বৃষ্টিপাত। চলতি বছরের আগস্ট মাসের তুলনায় সেপ্টেম্বর মাসে এই পরিসংখ্যান তুলনামূলক অনেক কম।

যা সিলেটের অন্যতম শিল্পজাত পণ্য চায়ের জন্য কিছুটা হতাশাব্যঞ্জক। শুধু তা-ই নয়, ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরের বৃষ্টিপাতের পরিসংখ্যান অর্ধেকেরও কম।

চায়ের জন্য পরিপূর্ণ বৃষ্টিপাত এবং রৌদ্রতাপ দুটোই গুরুত্ববহ। এই ভেষজশিল্পকে প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে স্বাভাবিক পরিচর্যার সুযোগ করে দিলে চা উৎপাদনে আসে আশাতীত সাফল্য। যা চায়ের বাৎসরিক রেকর্ডগুলো থেকেই অনুমান করা যায়। কিন্তু প্রয়োজনীয় বৃষ্টিপাতের অভাবে চাশিল্প কিছুটা বাধাগ্রস্ত হয়।  

সিলেট আবহাওয়া অফিস এবং শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া অফিসের তথ্যানুযায়ী সেপ্টেম্বর-২০২১ মাসে মোট বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৩৮৭ দশমিক ২ মিলিমিটার। গতমাস অর্থাৎ আগস্ট-২০২১ এই দুই অফিসের মোট বৃষ্টি পরিমাণ ছিল ১৩৪১ দশমিক ৮ মিলিমিটার।

সিলেট আবহাওয়া পূর্বাভাসকেন্দ্রের আবহাওয়া সহকারী অমর চন্দ্র তালুকদার বাংলানিউজকে বলেন, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসের মোট ৩০ দিনের মধ্যে বৃষ্টি হয়েছে ১৮ দিন। এই দিনগুলোতে মোট ১৯৮ দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। ওই ১৮ দিনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ বৃষ্টিপাতের তারিখ যথাক্রমে ৭ সেপ্টেম্বর ৬২ মিলিমিটার, ১৫ সেপ্টেম্বর ৫৩ মিলিমিটার এবং ১৮ সেপ্টেম্বর ১৪ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত।

আগের তথ্য সম্পর্কে পুরাতন নথিপত্র ঘেঁটে অমর চন্দ্র তালুকদার আরো বলেন, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সিলেটে এই বৃষ্টিপাতের রেকর্ড ছিল মোট ৩০৮ মিলিমিটার। ৩০ দিনের মধ্যে ২১ দিন বৃষ্টিপাত হয়েছিল। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সিলেটে এই বৃষ্টিপাত অনেক বেড়ে গিয়ে ৮২৭ দশমিক ৩ মিলিমিটার হয়েছিল। ৩০ দিনের মধ্যে বৃষ্টিপাত হয়েছে মোট ২৩ দিন।

এদিকে শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের আবহাওয়া সহকারী আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, চলতি বছর সেপ্টেম্বরে শ্রীমঙ্গলে মোট ১৮৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি পরিমাণ বৃষ্টিপাতের তারিখ যথাক্রমে ৯ সেপ্টেম্বর ৫৭ মিলিমিটার, ১৯ সেপ্টেম্বর ৩৪ মিলিমিটার এবং ৭ সেপ্টেম্বর ২৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত নথিভুক্ত করা হয়েছে।

গত বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে শ্রীমঙ্গলে ৩৪৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছিল বলে জানান এ আবহাওয়াসহকারী।  

বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিটিআরআই) সূত্র জানায়, ২০২০ সালে বাংলাদেশের ১৬৭টি চা বাগান থেকে মোট ৮৬ দশমিক ৩৯ মিলিয়ন (৮ কোটি ৬৩ লাখ ৯ হাজার) কেজি চা উৎপাদিত হয়েছিল। চা উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৫ দশমিক ৯৪ মিলিয়ন। তবে ২০১৯ সালেই চা উৎপাদনে সর্বকালের রেকর্ড সংখ্যক ৯৬ দশমিক ০৭ মিলিয়ন কেজি (৯ কোটি ৬ লাখ ৭ হাজার) চা উৎপাদন হয়েছিল। তখন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৮০ মিলিয়ন (৮ কোটি) কেজি।

বাংলাদেশীয় চা সংসদ (বিসিএস), সিলেটের ব্রাঞ্চ চেয়ারম্যান এবং সিনিয়র টি-প্লান্টার গোলাম মোহাম্মদ শিবলি বাংলানিউজকে বলেন, এবছর যথাসময়ে বৃষ্টিপাত হয়নি। রেইনি সিজনে (বর্ষা মৌসুমে) আমরা অন্যান্য বছরের তুলনায় বৃষ্টিপাত পাইনি। ফলে কিছুটা অসুবিধায় পড়তে হয়েছে। এখন অটাম সিজনে (শরৎ মৌসুমে) দেখুন কেমন বৃষ্টিপাত হচ্ছে। পরিবেশগত কারণে বৃষ্টিপাত অনেক পিছিয়েছে।  

চলতি বছরের গত আগস্ট মাসের তুলনায় কিংবা গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের তুলনায় এই সেপ্টেম্বরে বৃষ্টিপাত কিছুটা কম হলেও এর ধারাবাহিকতা আছে। ফলে খুব একটা সমস্যা হবে না। আমার তো ধারণা- গত বছরের ৮৬ দশমিক ৩৯ মিলিয়ন কেজি রেকর্ড এবার ক্রস (অতিক্রম) করবে বলে জানান এ সিনিয়র টি-প্লান্টার।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৫, ২০২১
বিবিবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa