ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

পরিবেশ রক্ষায় অবদান: ৮ জনকে গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০২১
পরিবেশ রক্ষায় অবদান: ৮ জনকে গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড 

ঢাকা: সবুজ আন্দোলনের পথচলা সবে মাত্র তিন বছর। সংগঠনটি গত ২০১৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর যাত্রা শুরু করে।

জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ বিপর্যয় নিয়ে রাষ্ট্রের পক্ষে জনসচেতনতা তৈরি ও আন্তর্জাতিক জলবায়ু তহবিল আদায়ের জন্য সোচ্চার ভূমিকা পালন করছে। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন তরুণ সংগঠক বাপ্পি সরদার। বর্তমান সময়ে সংগঠনে দেশে ও বিদেশে মিলিয়ে প্রায় ৫০ হাজার সদস্য।

 প্রতিবছর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠন থেকে পরিবেশ খাতে বেসরকারিভাবে জাতীয় পুরস্কার গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড  দিয়ে আসছে। এ বছর পরিবেশ খাতে গবেষণা ও জনসচেতনতা তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা রাখায় ১ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে রাষ্ট্রের ৮ বিশিষ্ট নাগরিককে সবুজ আন্দোলনের পক্ষ থেকে সম্মাননা দেওয়া হবে।

এবার গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন, গাছের প্রজনন বৃদ্ধি ও মৃত্তিকা গবেষণায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন, বায়ু দূষণ ও পরিবেশ সচেতনতায় প্রথম আলোর সিনিয়র রিপোর্টার গোলাম ইফতেখার মাহমুদ, নদী গবেষণা ও ঢাকা সিটির পরিবেশ সচেতনতায় রিভার অ্যান্ড ডেল্টা রিসার্চ সেন্টার’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এজাজ, সাংবাদিকতার মাধ্যমে পরিবেশ বিপর্যয় নিয়ে জনসচেতনতা তৈরিতে চ্যানেল ২৪ এর সিনিয়র রিপোর্টার মাকসুদ-উন-নবী, পরিবেশ সংক্রান্ত দুর্নীতি রিপোর্ট প্রকাশ ও পরিবেশ সচেতনতায় বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার শাহেদ শফিক, ঢাকা সিটির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জীবন বৃত্তান্ত গণমাধ্যমে তুলে ধরায় বাংলা টিভি স্টাফ রিপোর্টার মো. শাহারিয়ার আল মামুন, গবেষণাধর্মী প্রতিবেদন ও পরিবেশ সচেতনতায় মোহনা টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার ঊষা ফেরদৌস এবং পরিবেশ গবেষণা ও জনসচেতনতায় বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখায় দৈনিক অধিকার'র ফিচার সম্পাদক সাঈদ মাহাদী সেকেন্দার।

সবুজ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার বলেন, আমাদের খুব ভালো লাগছে বাংলাদেশের ৮ বিশিষ্ট নাগরিককে এবছর গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড দিতে পেরে। প্রত্যেকেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে নিজের পেশার প্রতি সম্মান রেখে এবং দেশপ্রেমের চেতনায় বলিয়ান হয়ে রাষ্ট্রকে আগামী প্রজন্মের জন্য নিরাপদ করতে পরিবেশ বিপর্যয় রোধে জনসচেতনতা তৈরিতে ভূমিকা রেখে চলেছেন। আমি বিশ্বাস করি একদিন বাংলাদেশের সকল নাগরিক পরিবেশ সম্পর্কে সচেতন হবেন এবং আগামী প্রজন্মের জন্য নিরাপদ পৃথিবী গড়তে কাজ করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১২ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০২১
এমআইএস/এসআইএস


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa