ঢাকা, সোমবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৮, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ সফর ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

ভারী বর্ষণে পাহাড় ধসের আশঙ্কা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩১৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৭, ২০২১
ভারী বর্ষণে পাহাড় ধসের আশঙ্কা বাংলানিউজ ফাইল ছবি

ঢাকা: লঘুচাপ ও মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বেড়েছে। রয়েছে অতিভারী বর্ষণের আভাস।

ফলে পাহাড় দেখা দিয়েছে ধসের আশঙ্কা।  

আবহাওয়া অফিস জানায়, মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দেশের বিভিন্ন স্থানে মাঝারি থেকে অতিভারী বর্ষণ হয়েছে। কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড় ধসে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবারও (২৮ জুলাই) অতিভারী বর্ষণের আভাস রয়েছে। আর এতে পাহাড় ধস হতে পারে।  

আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ বাংলানিউজকে জানান, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে। মৌসুমী বায়ুর অক্ষের বর্ধিতাংশ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ, লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল ও বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

এই অবস্থায় বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত খুলনা, বরিশাল, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি সঙ্গে বজ্রপাত হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা (১-২) ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। ঢাকায় দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে এ সময় ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ উঠতে পারে ১০-১৫ কিলোমিটার।  

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকবে। বর্ধিত পাঁচদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে।  

অন্য এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সক্রিয় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বুধবার দুপুর পর্যন্ত ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪-৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতিভারী (২৮৯ মিলিমিটার) বর্ষণ হতে পারে।

ভারী বর্ষণের কারণে চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের সম্ভাবনা রয়েছে।  

এদিকে লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলে রয়েছে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার শঙ্কা। তাই সমুদ্রবন্দরসমূহকে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।  

মঙ্গলবার দেশে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে। বরিশালের খেপুপাড়ায় ১৭৬, পটুয়াখালীতে ১২৭ ও কক্সবাজারে ১৪১ মিলিমিটার বর্ষণ হয়েছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সিলেটে ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় বৃষ্টিপাত হয়েছে ২৩ মিলিমিটার এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাংলাদেশ সময়: ২৩১০ ঘণ্টা, জুলাই ২৭, ২০২১
ইইউডি/এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa