ঢাকা, বুধবার, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

জুনে ১৭.৮ শতাংশ বেশি বর্ষণ, সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত ২১৬ মিলি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০২ ঘণ্টা, জুলাই ৬, ২০২১
জুনে ১৭.৮ শতাংশ বেশি বর্ষণ, সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত ২১৬ মিলি

ঢাকা: গত জুন মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে দেশব্যাপী ১৭ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। একদিনে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে চট্টগ্রামে, ২১৬ মিলিমিটার।

আবহাওয়া অফিস এক মাসের আবহাওয়ার গতিবিধি পর্যালোচনা করে এ তথ্য জানিয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, গত ১ জুলাই এক বৈঠকে জুন মাসের আবহাওয়া তথ্য উপাত্ত পর্যালোচনা করা হয়েছে।

এতে দেখা গেছে, জুন মাসে সারাদেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ১৭ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। স্বাভাবিকের চেয়ে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে ময়মনসিংহে। এ বিভাগে ৩৪ শতাংশ বেশি বর্ষণ হয়েছে।

সিলেট ও রংপুর বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বর্ষণ হয়েছে। সিলেট বিভাগে সবচেয়ে কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। এ বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে বৃষ্টিপাত হয়েছে ২৯ শতাংশ কম।

জুনে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু তথা গত ৫ জুন মিয়ানমারের ইয়াংগুন উপকূল অগ্রসর হয়। ৬ জুন এটি চট্টগ্রাম, বরিশাল, সিলেট, ময়মনসিংহ ও ঢাকা বিভাগের পূর্বাংশ পর্যন্ত চলে আসে। গত ১১ জুন মৌসুমী বায়ু সারাদেশে বিস্তার লাভ করে। সক্রিয় মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে ০৫-০৭, ১৫-২০ এবং ২৯-৩০ জুনে মোট ১১ দিন দেশের অনেক স্থানে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হয়। ৩০ জুন এ মাসের দৈনিক সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড হয় চট্টগ্রামে ২১৬ মিলি মিটার।

এদিকে ১১ জুন সকাল ৬টায় উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়, যা পরবর্তীতে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ১৪ জুন ভারতের বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান নেয়। এরপর এটি স্থলভাগের ওপর দিয়ে একই দিকে আরাে অগ্রসর হয়ে ১৫ জুন ভারতের ঝাড়খণ্ড ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান নেয় এবং পরবর্তীতে এটি আরাে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও দুর্বল হয়ে মৌসুমী অক্ষের সঙ্গে মিলিত হয়।

পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় তাপীয় লঘুচাপ অবস্থান করায় ০৪-০৭ জুন খুলনা, ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের অনেক স্থানে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ (৩৬-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বয়ে যায়। এ সময় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ৬ জুন রেকর্ড করা হয় যশোরে।

বায়ুমণ্ডলের নিম্নস্তরে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি থাকায় ৫ জুন দেশের বিভিন্ন স্থানে দমকা/ঝড়ো হাওয়া এবং বিজলী চমকানােসহ বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টি হয়। এ সময় বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৭৪ কিলোমিটার চট্টগ্রামে রেকর্ড করা হয়। এ মাসে দেশের সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে যথাক্রমে শূন্য দশমিক ৩ ডিগ্রি এবং শূন্য দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল।

এছাড়া তাপপ্রবাহ, কালবৈশাখী ঝড়, নিম্নচাপ, কৃষি আবহাওয়া এবং দেশের নদ-নদীর অবস্থা ২০২১ সালের মে মাসের পূর্বাভাসের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ছিল।

বাংলাদেশ সময়: ২১০২ ঘণ্টা, জুলাই ০৬, ২০২১
ইইউডি/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa