bangla news

তজুমদ্দিনে উদ্ধারকৃত হরিণ অবমুক্ত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০১-৩০ ২:০২:৫৪ এএম

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার চর মোজাম্মেল এলাকায় রোববার রাতে লোকালয়ে আসা ১টি হরিণ উদ্ধার করা হয়। সোমবার সকালে হরিণটি উপজেলার সোনার চরের সংরক্ষিত বনে অবমুক্ত করেছে বনবিভাগের লোকজন।

ভোলা: ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার চর মোজাম্মেল এলাকায় রোববার রাতে লোকালয়ে আসা ১টি হরিণ উদ্ধার করা হয়। সোমবার সকালে হরিণটি উপজেলার সোনার চরের সংরক্ষিত বনে অবমুক্ত করেছে বনবিভাগের লোকজন।
 
রোববার সন্ধ্যায় নদীতে ভাসমান অবস্থায় হরিণটি উদ্ধার করা হয়। এর ১৫ ঘণ্টা পর সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় প্রাণীটি অবমুক্ত করেছে বনবিভাগ।

তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, বিকেলে খাদ্য ও পানির খোঁজে দুর্গম চর মোজাম্মেল এলাকা থেকে দক্ষিণে লোকালয়ে চলে আসে হরিণটি। এ সময় পানি পান করতে গিয়ে হরিণটি নদীতে পড়ে যায়। হরিণটিকে নদীতে ভাসতে দেখে স্থানীয় জেলেরা এটি উদ্ধার করে থানায় খবর দেয়।

খবর পেয়ে সন্ধ্যা ৭টার দিকে পুলিশ সেখানে গিয়ে হরিণটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতেই বিষয়টি বনবিভাগের কর্মীদের জানানো হয়। তারা সোমবার সকালে থানা থেকে হরিণটি এনে উপজেলার সোনার চর এলাকায় অবমুক্ত করে।

ভোলার বিভাগীয় সহকারী বন সংরক্ষক মাসুদ সর্দার জানান, হরিণটি সুস্থ্য রয়েছে। সোনার চরে বন বিভাগের সংরক্ষিত বনে চিত্রা প্রজাতির ওই হরিণটি অবমুক্ত করা হয়।

এদিকে, লোকালয়ে আসা হরিণকে ঘিরে এক শ্রেণির শিকারী চক্র সক্রিয় হয়ে ওঠেছে। তারা হরিণ শিকারের জন্য বিভিন্ন ফাঁদ ব্যবহার করছে।

এ ব্যাপারে ওসি বলেন, ‘চর মোজাম্মেল এলাকায় দল বেধে শত শত হরিণ লোকালয়ে আসছে বলে শুনেছি। তবে কেউ যাতে হরিণ শিকার করতে না পারে সে ব্যাপারে প্রশাসন সক্রিয় রয়েছে।’

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১২

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2012-01-30 02:02:54