bangla news

বিরল প্রজাতির মাছ ‘পাইপ ফিশ’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০১-১৪ ৪:১৩:০৯ এএম

জলবায়ু পরিবর্তন ও মানুষের কারণে ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে জল এবং স্থলে বাস করা প্রাণীকূল। ফলে কয়েক যুগ পূর্বে সচরাচর দেখা মিলতো যেসব প্রাণীর- তাদেরও এখন বিপন্ন বা বিরল প্রজাতি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

ঢাকা : জলবায়ু পরিবর্তন ও মানুষের কারণে ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে জল এবং স্থলে বাস করা প্রাণীকূল। ফলে কয়েক যুগ পূর্বে সচরাচর দেখা মিলতো যেসব প্রাণীর- তাদেরও এখন বিপন্ন বা বিরল প্রজাতি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

প্রকৃতির স্বাভাবিক ভারসাম্য রক্ষায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা প্রাণী বৈচিত্র্যের বিপন্ন হয়ে যাওয়ার বিষয়টি পুরো ইকো সিস্টেমে বড় রকমের নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে বলে মনে করেন প্রাণী বিজ্ঞানীরা।

এক সময় আমাদের নদ-নদী ও অন্যান্য জলাশয়ে অহরহ দেখা মিলতো পাইপ ফিশের। সময়ের বিবর্তনে সহজলভ্য এ পাইপ ফিশ এখন বিরল তালিকায় নাম লিখিয়েছে।

সম্প্রতি প্রতিবেশী দেশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার আলিপুরদুয়ার এলাকার নোনাই নদীতে দেখা মিললো বিরল প্রজাতির পাইপ ফিশের।

স্থানীয় কার্শিয়াং কলেজের প্রাণবিদ্যার শিক্ষক মানিক আচার্য আলিপুরদুয়ার জংশন এলাকার নোনাই নদী থেকে সংগ্রহ করেন একজোড়া পাইপ ফিশ।  

১৯৩৭ সালের দীর্ঘদিন পরে ২০০৬-০৮ সালে হিমালয়ান নেচার অ্যান্ড অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের (ন্যাফ) পক্ষ থেকে ভারতের ডুয়ার্সের বক্সা অভয়ারণ্যের মাছ নিয়ে গবেষণার সময়ে ওই দুটি মাছের অস্তিত্ব টের পাওয়া যায়। মাছটির বৈজ্ঞানিক নাম মাইক্রোফিস ডেওকাটা।

গবেষক মানিক আচার্য জানান, মানুষের খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত না হলেও মাছটি দেখতে সুন্দর। সরু ও লম্বাটে গড়নের, মুখ চোখা। এরা ভেলন সারিয়া নামে এক প্রকার জলজ ঘাসে থাকে।

ফলে অন্যান্য মাছ এদের দেখতে পায় না। মাছটি চার ইঞ্চি থেকে ছয় ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়। প্রজণনের সময় পুরুষ মাছের গায়ে সবুজ রংয়ের আভা এবং মেয়ে মাছের গায়ে বাদামি আভা দেখা যায়।

মূলত: ভারত  ও বাংলাদেশে মাছটি পাওয়া যায়।

সূত্র : আনন্দবাজার
বাংলাদেশ সময় : ১৪৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১২ 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db 2012-01-14 04:13:09