bangla news

ইজারা প্রথার জন্যই হাওরে মাছ আছে: প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২৩ ২:৪৮:২৯ পিএম
গোলটেবিল বৈঠক, ছবি: জিএম মুজিবুর

গোলটেবিল বৈঠক, ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: মাছ রক্ষার্থে সরকারি নীতির মাধ্যমেই হাওর ইজারা দেওয়া হয়। এ কারণে মাছ ও মাছের আকার বাড়ছে। ইজারা না থাকলে মাছ ধরা বা নিধন রোধ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেত। ইজারা প্রথার কারণেই হাওরে মাছ আছে।

সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিকের আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে এসব কথা বলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু।
 
আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, কোনো মৎস সমিতিকে হাওর ইজারা দেওয়া হয়। তারা একটু লাভের আশায় অন্য কোনো ব্যক্তিকে সে ইজারা দিয়ে দেই। ইজারা দেওয়ার কারনেই সেখানে মাছ ধরা বন্ধ থাকে এতে মাছ পরিপক্কতা পায়। ইজারা না থাকলে হাওরে একটা দাড়কিনা-পুঁটির (এক প্রকার ছোট মাছ) কোনো অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যেত না। মাছ রক্ষা করা সরকারের পক্ষে সম্ভব হতো না।

তিনি বলেন, সাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ থাকায় আজ বাজারে সব রকম মাছ পাওয়া যাচ্ছে। বর্ষাকালে ইলিশ মাছ এখন নদীর সঙ্গে খাল-বিলেও চলে আসছে। অনেক লোনা পানির মাছ গভীর সমুদ্রে চলে গিয়েছিলো সেগুলো এখন আবার ফিরে এসেছে।

পবার চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক সংসদ সদস্য ছবি বিশ্বাস, বারসিকের পরিচালক সৈয়দ আলী বিশ্বাস, গবেষক পাভেল পার্থ, সৈয়দ আনোয়ার, সুপ্রিক কোর্টের আইনজীবী সুব্রত কুমার পাল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
ইএআর/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-09-23 14:48:29