bangla news

কলার আড়ত থেকে উদ্ধার ‘কালনাগিনী’, লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০৩ ৪:০০:১৮ এএম
শ্রীমঙ্গলের কলা আড়তে পাওয়া ‘কালনাগিনী’। ছবি: বাংলানিউজ

শ্রীমঙ্গলের কলা আড়তে পাওয়া ‘কালনাগিনী’। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: শ্রীমঙ্গলে কলার আড়ত থেকে বিপন্ন প্রজাতির একটি কালনাগিনী সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। পরে সাপটি লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।

সোমবার (০২ সেপ্টেম্বর) সাপটি উদ্ধার করা হয় এবং একইদিনে তা অবমুক্ত করা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সোমবার (০২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শ্রীমঙ্গলের নতুন বাজার দক্ষিণ রোডে সুশান্ত বাবুর কলার আড়তে একটি সাপ দেখে উপস্থিত লোকজন ভয় পেয়ে যায়। পরে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দিলে ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক সঞ্চিত দেব সাপটিকে উদ্ধার করেন।

বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বাংলানিউজে বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় সাপটি লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে নিয়ে যাই। বিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন এ বিরল প্রজাতির সাপটিকে অবমুক্ত করেন। এই সাপটি দেখতে খুবই সুন্দর।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও গবেষক ড. কামরুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, ‘কালনাগিনী’ সাপকে কলার আড়তে পাওয়ার অর্থ - কলার বনের মধ্যে এই সাপটি ছিল। তারপর কলা ছড়ি কেটে বাজারে নিয়ে আসলে ওই কলার ছড়ির ভেতর সাপটি থেকে যায়।

তিনি আরও বলেন, ‘কালনাগিনী’ সাপের ইংরেজি নাম Ornate Flying Snake এবং বৈজ্ঞানিক নাম Chrysopelea ornata। এরা ভালো গাছ বাইতে পারে এবং প্রয়োজনে লাফ দিয়ে অন্য গাছে যেতে পারে। এরা সামান্য পরিমাণে বিষাক্ত। তবে এই বিষ মানুষের তেমন ক্ষতি করে না।

প্রাপ্তবয়স্ক একেকটি ‘কালনাগিনী’ প্রায় ১০০ থেকে ১২০ সেন্টিমিটার হয়ে থাকে। খুব বেশি বড় হলে সর্বোচ্চ ১৭৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়। এরা অনেকটা শান্ত স্বভাবের। ছোট জাতের গিরগিটি, ইদুর, বাদুড়, পাখির ডিম, ছোট কীটপতঙ্গ প্রভৃতি এদের খাদ্য তালিকায় রয়েছে। বাংলাদেশ, ভারত, মিয়ানমারসহ দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার অনেক দেশের চিরসবুজ বনে এদের পাওয়ায় যায় বলে জানান ড. কামরুল হাসান।

বাংলাদেশ সময়: ০৪০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯
বিবিবি/এইচএডি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   জীববৈচিত্র্য
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-03 04:00:18