ঢাকা, রবিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৩ জুন ২০২১, ০২ জিলকদ ১৪৪২

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

কুড়িগ্রামে উদ্ধার বনরুইটি লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১২১ ঘণ্টা, জুন ৪, ২০১৯
কুড়িগ্রামে উদ্ধার বনরুইটি লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয় এ বনরুইটি। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: অবশেষে কুড়িগ্রামে উদ্ধার সেই মহাবিপন্ন বনরুইটি অবমুক্ত করা হলো। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের জানকিছড়া বিটে প্রকৃতির ঘন অরণ্যে বনরুইটি অবমুক্ত করা হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ মে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে প্রাণীটি অবমুক্ত করার জন্য আনা হলে আবারো অসুস্থ হওয়ায় বন কর্মকর্তাদের পরামর্শে প্রাণীটিকে শ্রীমঙ্গল বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে চিকিৎসার জন্য রাখা হয়।
 
সোমবার (৩ জুন) বিকেলে লাউয়াছড়ার জানকিছড়া নামক স্থানে প্রাণীটি অবমুক্তকালে উপস্থিত ছিলেন বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) সামছুল মুহিত চৌধুরী।

বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব প্রমুখ।
 
বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে পরিচালক সজল দেব বলেন, আমরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে তুলে আজ (সোমবার) বনে ছাড়ার ব্যবস্থা করেছি। প্রাণীটি খুবই অসুস্থ অবস্থায় আমাদের কাছে আনা হয়েছিল। এখন পুরোপুরি সুস্থ।
 
বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) সামছুল মুহিত চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, গত ২৩ মে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরে পাচারকারীদের হাত থেকে পুলিশ বনরুইটি উদ্ধার করে। পরে ২৫ মে সেখান থেকে নিয়ে গিয়ে রাজশাহী বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে ঢাকা হয়ে শ্রীমঙ্গলে প্রাণীটি নিয়ে আসা হয়। ৩০ তারিখ প্রাণীটি লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত করার কথা থাকলেও অসুস্থ হয়ে পড়লে আর ছাড়া হয়নি। আজ অবমুক্ত করা হলো।
 
বনরুই আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘ (আইইউসিএন) এর ‘লাল-তালিকা’ অনুযায়ী পৃথিবীব্যাপী মহাবিপন্ন প্রাণী হিসেবে চিহ্নিত। আঁশযুক্ত এ স্তন্যপায়ী প্রাণীটির ইংরেজি নাম Pangolin।  
 
বাংলাদেশ সময়: ২১১৩ ঘণ্টা,  জুন ০৩, ২০১৯
বিবিবি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa