ঢাকা, শুক্রবার, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ২৬ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

সাগরে নিম্নচাপ, চা বাগানে ‘আনন্দ বৃষ্টি’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-১৯ ৮:৩১:০৮ এএম
শ্রীমঙ্গলে চা বাগানে বৃষ্টিপাত। ছবি: পার্থসারথি দাস

শ্রীমঙ্গলে চা বাগানে বৃষ্টিপাত। ছবি: পার্থসারথি দাস

মৌলভীবাজার: দেশব্যাপী নিম্নচাপের জন্য সৃষ্ট বৃষ্টিপাত চায়ের জন্য বয়ে এনেছে মঙ্গলবার্তা। এর ফলে চা গাছে আগাম পাতা উত্তোলন করা সম্ভব হবে। অসময়ের এই বৃষ্টিপাতকে চায়ের ভাষায় বলা হয় ‘আনন্দ বৃষ্টি’। এ বৃষ্টিপাত আরো দু’একদিন অব্যাহত থাকলে আগামী বছর চায়ের চা পাতা উত্তোলনে দারুণ সার্থকতা আসবে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

শীত মৌসুমের এই আকস্মিক বৃষ্টি মৌলভীবাজার জেলার চা-শিল্পাঞ্চলের ৯২টি বাগানের জন্য আশীর্বাদ হয়ে এসেছে। এসময় প্রতিটি বাগানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে চা গাছে প্রুনিং বা চা-গাছ ছাঁটাইয়ের কাজ। এতে চা-শিল্পাঞ্চল সতেজ, সবুজ হয়ে উঠেছে। দূর হবে চা-গাছে পোকামাকড়ের আক্রমণ।

  অভিজ্ঞ টি-প্ল্যান্টার ও বারোমাসিয়া চা বাগানের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক হক ইবাদুল বাংলানিউজকে বলেন, এই বৃষ্টিপাত চায়ের জন্য উপকারি। এখন তো মাটি শুষ্ক থাকে। পরিপক্ব চারা বা বাচ্চা চারা দুটোর জন্যই উপরকারি এই বৃষ্টি। এর ফলে মাটিতে আর্দ্রতাযুক্ত হবে যা পরবর্তী বছরে চায়ের ফলন বাড়াবে।

তিনি আরো বলেন, এখন তো মাটিতে আর্দ্রতা নেই, এ বৃষ্টিপাতের ফলে মাটিতে পানি যুক্ত হলো। ফলে জানুয়ারি পর্যন্ত চা গাছগুলো ভালো সাপোর্ট পাবে। খরামুক্ত থাকবে। পরবর্তী বছর পাতাটা তাড়াতাড়ি আসবে। সাধারণত বৃষ্টি থেমে যায় নভেম্বরে। কিন্তু এই ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ের বৃষ্টিতে বাতাসে আর্দ্রতাযুক্ত হলো। এ কারণে মাটিতে যে পানি আছে তাতে আর্দ্রতা নষ্ট হবে না।

বাতাসে তখন আর্দ্রতা কমে যায় তখন মাটির পানি বাতাসে চলে যায়। নিম্নচাপ হওয়ার ফলে বাতাসে আর্দ্রতা বাড়ে। ফলে চা বাগানে মাটির পানির ক্ষতিটা অনেক কম হবে। চা বাগানের মাটি তার পানিটা ধরে রাখতে পারবে প্রায় এক মাস পর্যন্ত। জানান অভিজ্ঞ সিনিয়র টি-প্ল্যান্টার হক ইবাদুল।

ঢাকা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ হারুন অর রশিদ বাংলানিউজে বলেন, শ্রীমঙ্গল-মৌলভীবাজার এলাকায় সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) দুপুর থেকে ও মঙ্গলবার দুপুর (১৮ ডিসেম্বর) সকাল পর্যন্ত ২৬ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।  

সারাদেশে বাতাসের তাপমাত্রা প্রায় ১৬-১৭ সেলসিয়াস। আগামী দু’এক দিনের মাঝে বৃষ্টি কেটে গিয়ে তীব্র শীত নামবে বলে জানান আবহাওয়াবিদ হারুন অর রশিদ।

বাংলাদেশ সময়: ০৮২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮
বিবিবি/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মৌলভীবাজার
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14