[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
bangla news

লোকালয়ে হনুমান, উদ্ধারে আগ্রহ নেই সংশ্লিষ্টদের

বেলাল হোসেন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-০৭ ৫:১৩:০৩ পিএম
লোকালয়ে ঘোরাঘুরি করছে হনুমানটি। ছবি: বাংলানিউজ

লোকালয়ে ঘোরাঘুরি করছে হনুমানটি। ছবি: বাংলানিউজ

বগুড়া: খাবারের খোঁজে দলছুট হয়ে লোকালয়ে ছুটে এসেছে একটি হনুমান। কয়েকদিন ধরেই বগুড়ার বিভিন্ন এলাকায় হনুমানটি ঘোরাফেরা করছে। বিষয়টি জেনেও উদ্ধার করার ব্যাপারে তেমন কোনো আগ্রহ নেই সংশ্লিষ্টদের। 

সর্বশেষ শুক্রবার (০৭ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের সূত্রাপুর এলাকায়  হনুমানটির দেখা মেলে। দৃষ্টিগোচর হওয়া মাত্রই উৎসুক জনতা হনুমানটিকে আপেল, কলা, পাউরুটিসহ বিভিন্ন রকমের খাবার খেতে দেয়। 

জানা যায়, মঙ্গলবার (০৪ ডিসেম্বর) বগুড়া শহরের অদূরে সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজের পাশে দিয়ে বয়ে যাওয়া সুবিল খালের গাছপালায় প্রথম হনুমানটির দেখা মেলে। পরদিন বুধবার (০৫ ডিসেম্বর) রাতে হনুমানটি শহরের দত্তবাড়ি এলাকায় চলে আসে। এরপর বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) একইভাবে রাতে বেলায় স্থান পরিবর্তন করে প্রেসপট্টি এলাকায় চলে আসে।

লোকালয়ে ঘোরাঘুরি করছে হনুমানটি। ছবি: বাংলানিউজ

স্থানীয়রা জানান, হনুমানটি এখনো কোনো মানুষের ক্ষতি করেনি। কিন্তু মানুষ দেখে হনুমানটি সবসময় ভয়ে থাকে। তবে হনুমানটি অনেকটা শহুরে মানুষের আনন্দের খোরাক হয়েছে।

আবুল কালাম আজাদ নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা বাংলানিউজকে জানান, হনুমানটি দেখতে প্রতিদিন মানুষ ভিড় করছে। মানুষের ভিড়ে হনুমানটি ভয়ে এদিকে-ওদিক ছোটাছুটি করছে।
 
নকশি ও টুকটুকি নামে দুই কিশোর বাংলানিউজকে জানায়, হনুমানটি আমাদের খুব আনন্দ দিয়েছে। আমারা হনুমানটিকে আপেল, কলা, পাউরুটি খেতে দিয়েছি।
 
এ বিষয়ে রাজশাহী বিভাগের বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বন্যপ্রাণী পরিদর্শক জাহাঙ্গীর কবির বাংলানিউজকে বলেন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ করা দরকার। তবে এই মুহূর্তে হনুমানটি উদ্ধার করার কোন সুযোগ নেই।  

তিনি আরো বলেন, প্রকৃতিতে ওরা বিচরণ করে। হনুমানকে বিরক্ত না করলে সে কারো ক্ষতি করবে না। আপনা আপনি সে তার নিজের জায়গায় ফিরে যাবে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৮
এমবিএইচ/এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বগুড়া
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache