[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ১৫ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

জামালপুরে ধেয়ে আসছে বন্যার পানি, বিপদসীমার ওপরে যমুনা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১৭ ৫:৪৪:৩৫ এএম
সিসি ব্লকের বাঁধের ধসে পড়া অংশ। ছবি: বাংলানিউজ

সিসি ব্লকের বাঁধের ধসে পড়া অংশ। ছবি: বাংলানিউজ

জামালপুর: উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি ধেয়ে আসছে জামালপুরে। বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্ট এলাকায় যমুনার পানি ২০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমা অতিক্রম করেছে বলে জানায় পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে পানির স্তর ১৯.৫২ সেন্টিমিটার। স্বাভাবিক পানির স্তর হচ্ছে ১৯.৫০ সেন্টিমিটার।

ইতোমধ্যে দেওয়ানগঞ্জ রেলস্টেশন সড়ক তলিয়ে গেছে পানিতে। এছাড়া চুকাইবাড়ি, চিকাজানী, বাহাদুরাবাদ, চর আমখাওয়া, ডাংধরা ও পৌর এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বিস্তীর্ণ এলাকায় সদ্য রোপণ করা রোপা আমন ধান এখন পানির নিচে। বন্যায় ইসলামপুর উপজেলায় যমুনার বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের সিসি ব্লকের বাঁধের প্রায় ১০ মিটার ধসে গেছে। আর এসব নিয়ে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে।

উপজেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের জামালপুরের প্রকৌশলীরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. মাজহারুল ইসলামের নেতৃত্বে পানি উন্নয়ন বোর্ডের একটি দল রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা থেকে বাঁধের ভাঙন প্রতিরোধে সেখানে বালুভর্তি জিওব্যাগ ফেলছে।

জানা যায়, যমুনার বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের মাধ্যমে জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ফুটানি বাজার থেকে ইসলামপুর উপজেলা হয়ে সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা ইউনিয়ন পর্যন্ত ৪৫৫ কোটি টাকার ব্যয়ে গত বছর সিসি ব্লকের বাঁধ নির্মাণ প্রকল্পটির কাজ শেষ করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। সেই বাঁধের ইসলামপুর উপজেলার নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের উলিয়াঘাট ও বাজার এলাকায় ১৬ সেপ্টেম্বর ভোর থেকে সিসি ব্লকে ধস নামে। যমুনা নদীর পানির প্রবল স্রোতে বাঁধের প্রায় ১০ মিটার স্থান জুড়ে সিসি ব্লক নদীগর্ভে দেবে গেছে।

ইসলামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, উলিয়া বাজারের পেছনের বাঁধ পরিদর্শন করেছি। পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলীরাও সেখানে বালুর বস্তা ডাম্পিং শুরু করেছে।

এ প্রসঙ্গে জামালপুর পানি উন্নয়নের বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নব কুমার চৌধুরী জানান, উলিয়া বাজারের পেছনে বাঁধ রক্ষায় বালুভর্তি জিওব্যাগ ডাম্পিংয়ের কাজ শুরু করেছি। আশা করা যায় ভাঙন ঠেকানো যাবে। এ নিয়ে স্থানীয়দের আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

এদিকে বন্যার পানিতে ডুবে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চুকাইবাড়ি ইউনিয়নের দক্ষিণ বালুগ্রামের রাসেল মিয়ার পাঁচ বছরের শিশু রবি এবং ইসলামপুর উপজেলার নোয়ারপাড়া ইউনিয়নের সোনামুখী গ্রামের কৃষক সাইফুল ইসলামের তিন বছরের মেয়ে সুমাইয়ার মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮
এনএইচটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বন্যা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache