ঢাকা, রবিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৩ জুন ২০২১, ০২ জিলকদ ১৪৪২

উপকূল থেকে উপকূল

তজুমদ্দিনে জোয়ারে প্লাবিত ৩ গ্রাম

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৫, ২০১৮
তজুমদ্দিনে জোয়ারে প্লাবিত ৩ গ্রাম তজুমদ্দিনে জোয়ারে প্লাবিত এলাকা। ছবি বাংলানিউজ

ভোলা: ভোলার তজুমদ্দিনে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে তিনটি গ্রাম। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে দালালকান্দি, মাওলানাকান্দি ও চৌকিদার কান্দির শতাধিক পরিবার। 

উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের পুরাতন রিং বাঁধের দালালকান্দি পয়েন্ট দিয়ে অমবশ্যায় সৃষ্ট জোয়ারের পানি প্রবেশ করে এসব এলাকা তলিয়ে গেছে। পানিতে শুধু তিন গ্রাম নয়, শশীগঞ্জ-ধরনীর খাল সড়কটিও তলিয়ে গেছে।

এতে দুর্ভোগে পড়েছেন ওইসব এলাকার বাসিন্দা এবং লঞ্চ যাত্রীরা।
  
তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডে বলছে, নতুন ও পুরনো বাঁধের মধ্যবর্তী নদীর কূলের কিছু পরিবার পানিবন্দি হয়েছে, এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।  

স্থানীয়রা জানান, প্রবল জোয়ারের চাপে শনিবার বিকেলে পুরাতন বাঁধ ভেঙে গেছে। ফলে শনি ও রবিবার (১৫ জুলাই) দুই দফা জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে চাঁদপুর ইউনিয়নের দালালকান্দি, মাওলানাকান্দি ও চৌকিদার কান্দি গ্রাম।  

চাঁদপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ফখরুল আলম জাহাঙ্গীর জানান, জোয়ার এসে পুরনো বাঁধ এলাকার কিছু পরিবার পানিবন্দি হয়েছে। লঞ্চঘাটের রাস্তাটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হবে। তবে নতুন বাঁধের ভেতরে কোনো সমস্যা নেই।

তজুমদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জালাল আহমেদ বলেন, সরেজমিন দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ড (ডিভিশন-২) নির্বাহী প্রকৌশলী কাওছার আলম বলেন, নদীর তীরে পুরনো বাঁধ এলাকায় যাদের বসতি, জোয়ারে তারাই কিছুটা পানির সমস্যায় পড়ে থাকে। নতুন বাঁধের কাজ প্রায় শেষের দিকে। তাদের নতুন বাঁধের পাশে বসতি গড়ার নিদের্শ দেয়া হয়েছে।   

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৫, ২০১৮
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa