ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

ভেজিটেরিয়ানরাও দায়ী জলবায়ু পরিবর্তনে!

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৫
ভেজিটেরিয়ানরাও দায়ী জলবায়ু পরিবর্তনে!

ভেজিটেরিয়ানদের জন্য খবরটি আঁতকে ওঠার মতোই! কারণ জলবায়ু পরিবর্তনে যারা ভূমিকা রাখছে, তার তালিকায় তাদের দিকেও এবার আঙুল উঠেছে। ভেজিটেরিয়ানরা পরিবেশবান্ধব বলে যে ধারণা তাকেই পাল্টে দিলো নতুন এক গবেষণা।

বরং উল্টো বলা হচ্ছে তাদের কারণেই পরিবেশ দূষণ।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখানো হয়েছে, অনেক সাধারণ শাকসব্জি উৎপাদনে গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃস্বরণ বিশেষ কিছু ধরনের মাংস উৎপাদনে সৃষ্ট নিঃস্বরণের চেয়ে বেশি। গবেষকরা দেখেছেন, স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে গিয়ে পরিবেশের ওপর চাপটা একটু বেশিই দেওয়া হচ্ছে।

বিভিন্ন ধরনের খাদ্য উৎপাদন, প্রক্রিয়াকরণ, পরিবহণ, বিপণন, বিক্রি, সেবা, ঘরে মজুদ করার পুরো প্রক্রিয়াকে এই গবেষণার আওতায় আনা হয়।   এছাড়াও গবেষকরা এ কাজে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির ব্যবহার, পানির ব্যবহার ও গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃস্বরণের মাত্রা মেপে দেখেছেন।

গবেষকদের একজন জন ফিশবেক বললেন, শুয়োরের মাংসে তৈরি বেকন খাওয়ার জন্য যে প্রক্রিয়া তার চেয়ে লেটুস খাওয়ার প্রক্রিয়ায় গ্রিনহাউজ গ্যাস বেশি নিঃস্বরণ হয়। বেগুন, শসাসহ আরও কিছু সাধারণ সব্জি উৎপাদনে ক্যালোরি প্রতি রিসোর্স ব্যবহার, শুয়োরের বা মুরগির মাংস উৎপাদনের চেয়ে বেশি বলেও জানান তিনি।

ফল, সব্জি, দুধ ও সামুদ্রিক মাছ উৎপাদনে ৩৮ শতাংশ জ্বালানি শক্তি, ১০ শতাংশ পানির ব্যবহার বেড়ে যায়। আর গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃস্বরণ বাড়ে ৬ শতাংশ।

এর মধ্য দিয়ে খাদ্যাভ্যাস ও পরিবেশের মধ্যে একটি জটিল সম্পর্কই দেখছেন গবেষকরা।

১৪১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৫
এমএমকে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।