ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

জাবিতে চলছে প্রজাপতি মেলা

জাবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫
জাবিতে চলছে প্রজাপতি মেলা ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়: ‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ স্লোগান নিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) চলছে ‘প্রজাপতি মেলা-২০১৫’।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগ ৬ষ্ঠবারের মতো দিনব্যাপী এ মেলার আয়োজন করেছে।



শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল দশটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনে মেলার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন (উপ-উপাচার্য)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক আবুল খায়ের, আইইউসিএন’র কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ইশতিয়াক উদ্দিন আহমেদ, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সায়েন্স অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজির ডিন এস এম মাহবুবুল হক মজুমদার প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদার।

উদ্বোধনী বক্তব্যে অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন বলেন, আমাদের গ্রাম-বাংলায় একটা কথা প্রচলিত আছে যে, ঘরে প্রজাপতি এলে আমরা একে লক্ষ্মী বলে মনে করি। আর আমাদের এ ক্যাম্পাসকেই প্রজাপতির আবাস হিসেবে গড়ে তুলেছেন অধ্যাপক মনোয়ার। এটা আমাদের জন্য সৌভাগ্যের। গত ছয় বছর ধরে এ মেলা সারা দেশবাসীর জন্য উপভোগ্য হয়ে উঠেছে।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের দক্ষিণ পাশে প্রায় তিন একর জায়গাজুড়ে নির্মিত দেশের প্রথম প্রজাপতি পার্ক ও গবেষণা কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন।

জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে সার্বিক অবদানের জন্য এবারের মেলায় ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারকে (আইইউসিএন) ‘বাটারফ্লাই অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়। সংস্থাটির পক্ষে কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ইশতিয়াক উদ্দিন আহমেদ এ পুরস্কার গ্রহণ করেন।

এছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইব্রাহিম খলিল আল হায়দারকে ‘ইয়াং বাটারফ্লাই এনথুজিয়াস্ট’ পুরস্কার দেওয়া হয়।

দিনব্যাপী এ মেলায় আরো অনুষ্ঠিত হবে শিশু-কিশোরদের জন্য প্রজাপতি বিষয়ক ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, প্রজাপতির আলোকচিত্র প্রদর্শনী, প্রজাপতি বিষয়ক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা, প্রজাপতির হাট দর্শন(জীবন্ত প্রজাপতি প্রদর্শন), অরিগামি প্রজাপতি, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি উড্ডয়ন, প্রজাপতি ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক বারোয়ারি বিতর্ক প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি চেনা প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শনী, পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠান।

প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি ও প্রজাপতি মেলার অধ্যাপক মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, প্রজাপতি ভালো থাকলে প্রকৃতি ভালো থাকবে। আর প্রকৃতি ভালো থাকলে আমরা ভালো থাকবো। তাই প্রজাপতি সংরক্ষণে গণসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতি বছর প্রজাপতি মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।

সবাইকে পরিবেশ ও প্রজাপতি রক্ষায় সচেতন ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০১৫
এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।