ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

জবাই করা বক, ঘুঘু ও এয়ারগান উদ্ধার

বগুড়ায় পরিবেশকর্মীর ধাওয়া খেয়ে পালালো পাখি শিকারীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০১৫
বগুড়ায় পরিবেশকর্মীর ধাওয়া খেয়ে পালালো পাখি শিকারীরা ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বগুড়া: পরিবেশকর্মীদের ধাওয়া খেয়ে পালালো পাখি শিকারীরা। পাখি শিকারীদের ফেলে যাওয়া জবাইকৃত দশটি বক ও বারোটি ঘুঘু উদ্ধার করেছে পরিবেশকর্মীরা।

এ সময় শিকারের কাজে ব্যবহৃত একটি এয়ারগানসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি উদ্ধার করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একেএম সরোয়ার জাহানের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) বিকেলে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের হঠাৎপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় পরিবেশকর্মী আব্দুর রাজ্জাক নাসিম বাদী হয়ে পাঁচ পাখি শিকারীকে অভিযুক্ত করে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত শিকারীরা হলেন -পাশ্ববর্তী সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার রোকনপুর গ্রামের মোজাফফর মন্ডল, একই গ্রামের মাহিন হাসান, জামিল, নবির ফকির ও রেজাউল করিম।  

পরিবেশকর্মী আব্দুর রাজ্জাক নাসিম, মুসলিম সরকার টিটু, হাসানুল বান্না বাংলানিউজকে জানান,  শীত মৌসুমের শুরুতেই এই উপজেলাসহ আশেপাশের এলাকার নদী-নালা, খাল-বিলে শীতকালীন নানা প্রজাতির অতিথি পাখি আসতে শুরু করেছে। সঙ্গে শিকারীরাও বসে নেই। তাদের দৌরাত্ম্যও মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।
 
এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকাল থেকেই উপজেলার ভবানীপুর এলাকায় পাঁচ শিকারী এয়ারগানের মাধ্যমে পাখি শিকার করছিলো। খবর পেয়ে তারা স্থানীয় এলাকাবাসীর সহায়তায় পাখি শিকারীদের আটকের চেষ্টা করেন।  
 
কিন্তু শিকারীরা একটি নতুন ডায়না (মডেল-৩৫) এয়ারগানসহ শিকার করা পাখিগুলো ফেলে পালিয়ে যায় বলে এসব পরিবেশকর্মীরা জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একেএম সরোয়ার জাহান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, পাখি শিকার করা একটি দণ্ডনীয় অপরাধ। তাই এসব শিকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া মৃত পাখিগুলো মাটিতে পুতে ফেলা হয়েছে বলে এই কর্মকর্তা জানান।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৮, ২০১৫
এমবিএইচ/আরআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।