bangla news

মালয়েশিয়ায় ১৬০টি নতুন প্রজাতির সন্ধান

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-১০-০৫ ২:৫২:৪২ এএম

মালয়েশিয়ার বরনিয়োর কিনাবালু পর্বতে নতুন ১৬০টি প্রজাতির উদ্ভিদ এবং প্রাণীর সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। বৃহস্পতিবার গবেষকরা নতুন এই প্রজাতি সন্ধানের বিষয়টি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে জানান।

ঢাকা: মালয়েশিয়ার বরনিয়োর কিনাবালু পর্বতে নতুন ১৬০টি প্রজাতির উদ্ভিদ এবং প্রাণীর সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। বৃহস্পতিবার গবেষকরা নতুন এই প্রজাতি সন্ধানের বিষয়টি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে জানান।

প্রাপ্ত ১৬০টি প্রজাতির উদ্ভিদ এবং প্রাণীর মধ্যে ফাঙ্গাস ও মাকড়সার প্রজাতির সংখ্যাই বেশি বলে জানিয়েছেন গবেষণা কাজে নিয়োজিত মালয়েশিয়া এবং ডাচ গবেষকরা।

নতুন সন্ধান পাওয়া প্রাণীদের মধ্যে পোকা এবং শামুকের অনেক নতুন প্রজাতি রয়েছে। আর উদ্ভিদের মধ্যে রয়েছে ফার্ন জাতীয় উদ্ভিদ।

এছাড়া প্রাপ্ত একটি ব্যাঙের ডিএনএ পরীক্ষার পর ব্যাঙের প্রজাতিটি সম্পূর্ণ নতুন বলে জানান তারা।

গবেষক জোসেফ মেল বলেন, প্রজাতিগুলোর বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করতে ‍আমাদের আরো অনেক সময় প্রয়োজন। তবে প্রজাতিগুলো বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ নতুন বলে তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান।

গবেষকরা তাদের এই অভিযানে ১ হাজার ৪শ’ প্রজাতির প্রায় ৩ হাজার ৫শ’ ডিএনএর নমুনা সংগ্রহ করেন বলে জানান। আর ২০১৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে গবেষকরা এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করবেন।

মালয়েশিয়ান কনজারভেশান অর্গানাইজেশন এবং ন্যাচারেলিয়াস বায়োডাইভারসিটি সেন্টার ইন দ্যা নেদারল্যান্ডস যৌথভাবে গবেষণাটি পরিচালনা করছে মালয়েশিয়ার সাবা পার্কের উদ্যোগে।

গবেষকরা প্রজাতিগুলোর ডিএনএ পরীক্ষা করে দেখছেন, প্রাপ্ত প্রজাতিগুলো সাম্প্রতিক সময়ে সৃষ্টি, নাকি আরো বহু আগে থেকে মালয়েশিয়ার পর্বতে এদের জন্ম।

প্রায় ১৩ হাজার ৪৩৫ ফুট উচ্চতার কিনাবালু পর্বত মালয় দীপপুঞ্জের সবচেয়ে দীর্ঘ পর্বত। কিনাবালু মালয়েশিয়ার জাতীয় উদ্যান এবং ইউনেস্কোর তালিকাভুক্ত বিশ্ব ঐতিহ্যময় স্থানের অন্তর্ভুক্ত।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৪ ঘণ্টা, ০৫ অক্টোবর ২০১২
সম্পাদানা: জনি সাহা, নিউজরুম এডিটর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2012-10-05 02:52:42