bangla news

শকুন রক্ষায় মানববন্ধন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০৯-০৫ ৮:২৬:৩৯ এএম

জীববৈচিত্রের অংশ ও প্রকৃতির সম্পদ এবং পরিবেশবান্ধব শকুন রক্ষায় মানববন্ধন করেছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বাজার থেকে শকুন ধ্বংসকারী ডাইক্লোফেনাক ওষুধ বিলুপ্তির দাবি জানান।

সিলেট: জীববৈচিত্রের অংশ ও প্রকৃতির সম্পদ এবং পরিবেশবান্ধব শকুন রক্ষায় মানববন্ধন করেছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বাজার থেকে শকুন ধ্বংসকারী ডাইক্লোফেনাক ওষুধ বিলুপ্তির দাবি জানান।
 
বিশ্ব শকুন দিবস উপলক্ষে বুধবার এ মানববন্ধনের আয়োজন করে ক্যাম্পাসের প্রাণী অধিকার সংরক্ষণ বিষয়ক সংগঠন প্রাধিকার। মানববন্ধনটি বেলা একটার দিকে ভেটেরিনারি ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ডা: মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, ডা: বাসুদেব পাল, ডা: ছদরুল ইসলাম, ডা: অনিমেষ রায়, ডা: রাশেদুন্নবী আকন্দ।
প্রাধিকার সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ সরকার নিষিদ্ধ করার পরও ডাইক্লোফেনাক ওষুধটি গরু ও অন্যান্য প্রাণীর এন্টিবায়োটিক কিংবা ব্যাথানাশক হিসেবে বাজারে অবাধে বিক্রি করা হচ্ছে।

এ ওষুধের ক্রিয়া বহুদিন প্রাণীর শরীরে থাকে এবং এ অবস্থায় প্রাণীটি মারা গেলে এর মৃতদেহ শকুন খেলে তারও কিডনি আক্রান্ত হয়। ডাইক্লোফেনাকের প্রভাবে শকুনের কিডনিতে পানি জমে মারা যায়।

প্রাধিকারের সভাপতি রাহুল দাশ তালুকদার বাংলানিউজকে বলেন, “এ ওষুধটি পুরো ভারতীয় উপমহাদেশে নিষিদ্ধ। কিন্তু এক শ্রেণীর অসাধু ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সাধারণ ভোক্তাদের অসচেতনতাকে কাজে লাগিয়ে ভিন্ন নামে এর বাজারজাত করছে।”

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রেনেটা ফার্মাকিউটিক্যালস কোম্পানি ‘ডাইক্লোভেট’ এবং এফএনএফ ফার্মাসিটিক্যালস কোম্পানি ‘ডিপেইন’ নামে ওষুধটি বাজারজাত করছে।

এদিকে প্রাধিকারের সাধারণ সম্পাদক জয়প্রকাশ রায় বলেন, “পরিবেশবান্ধব উপকারী প্রাণী শকুন বাংলাদেশে প্রায় বিলুপ্ত। ময়লা আবর্জনার পাশাপাশি ক্ষতিকর এনথ্রাক্স জীবানু খেয়ে আমাদের জীবন রক্ষা করে শকুন। শকুন রক্ষায় সবারই এগিয়ে আসা দরকার।”

উল্লেখ্য প্রাধিকার বাংলাদেশের প্রাণী অধিকার সংরক্ষণ বিষয়ে কাজ করে আসছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮১৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১২
এসএ/সম্পাদনা: আহমেদ জুয়েল, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db 2012-09-05 08:26:39