ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

ভোটের-কথা

কে হবেন বন্দর আসনের কাণ্ডারি, আগ্রহ থাকে ব্যবসায়ীদের

১৯৯০ সালের পর সংসদীয় গণতন্ত্রে উত্তরণের সময় থেকে এই সংসদীয় আসনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন ব্যবসায়ীরাই।  ১৯৯১ সাল থেকে তিন দফা জিতে সংসদে

মিরসরাইয়ে অপ্রতিদ্বন্দ্বী মন্ত্রী মোশাররফ

ফলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও মন্ত্রী মোশাররফ হোসেনকেই দলের প্রার্থী ঘোষণা করা হবে বলে মনে করছেন নেতা-কর্মীরা। তবে সাবেক উপজেলা

ব্যারিস্টার আনিস না আ’লীগের কেউ?

দলের বৃহত্তর স্বার্থে সরে দাঁড়ালেও এবার মহাজোটের প্রার্থী না থাকলে মনোনয়ন চাইবেন তিনি। এক্ষেত্রে তাকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ

জোট নয়, দলের প্রার্থী চায় ফটিকছড়িবাসী

তারা বলছেন, নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী নির্বাচিত হয়ে এলাকায় খুব বেশি উন্নয়ন কাজ করতে পারেননি। অধিকাংশ সময় ঢাকায় অবস্থানের কারণে

ফের নৌকা কি পাবেন আফছারুল?

আওয়ামী লীগের ভেতরের অভিযোগ, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে তিনি সক্রিয় নন।  দলের নেতাদের সঙ্গেও দূরত্ব রয়েছে।   এসব অভিযোগ ডিঙ্গিয়ে

আফছারুলের আসনে আলোচনায় নাগরিক সমস্যা

নগরীর কোতোয়ালি ও বন্দর থানার কিছু অংশ কেটে নিয়ে এ আসনটি গঠিত হয় ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে।   গত দু’টি নির্বাচনে এ আসনে নির্বাচিত

‘হেভিওয়েটদের’ আধিক্য, কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি?

বিএনপির সাবেক প্রতিমন্ত্রীসহ চারজন, জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্যসহ দু’জন এবং জামায়াতের একক ও একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী-মনোনয়ন

নৌকা নিয়ে কৌতূহল বাঁশখালীবাসীর

বাঁশখালীবাসী বলছেন, আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ছাড়াও মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে মাঠে আছেন চট্টগ্রাম

জাপার ঘাঁটি এখন আ’লীগের দুর্গ!

তারা এও বলছেন, রংপুর-১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৬ (সংসদীয় আসন ১৯, ২০, ২১, ২২, ২৩ ও ২৪) আসনের সবক’টিতে যদি আগামীতে আওয়ামী লীগ জয় পায় তবে অবাক হওয়ার কিছুই

দুই ভাইয়ের বিরোধে আ’লীগের সর্বনাশ!

দলীয় উদ্যোগে বদরগঞ্জ উপজেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদে থাকা এই দু’জনের মিল করিয়ে দেওয়া হলেও এক নন তারা। পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

মন্ত্রী হবেন টিপু সেই প্রভাব ভোটে!

রংপুর-৪ (কাউনিয়া-পীরগাছা) আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে পরপর দুবারের সংসদ সদস্য (এমপি) বিশিষ্ট ব্যবসায়ী টিপু এবারও মনোনয়ন চাইবেন। স্থানীয়

টিপুর বিপক্ষে এমদাদেই ভরসা

 বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) টিপু মুন্সি আওয়ামী লীগের নেতা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি। ক্ষমতাসীন

‘এরশাদ কান্দিলে ভোট আছে কিসু’

তবে এই ফ্যাক্টর দিন দিন কমছে। নানা কারণেই এরশাদের মতো যৌবন নেই তার দলেরও!   কিছু কিছু মানুষ অবশ্য এখনও সাবেক এই রাষ্ট্রপতিকে চান।

জাপা-আ’লীগের ঘরে সিঁদ কাটতে পারেন রানা!

দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা এবং হামলা-মামলায় জড়িয়ে অনেক নেতাকর্মীই নিজেদের গুটিয়ে নিয়েছেন। এ আসনের অনেক বিএনপি নেতাকর্মীই কয়েক

এমপি হয়েই ‘লাপাত্তা’ সাবেক চেয়ারম্যান

বাঁশের সাকো পার হয়েই উপজেলা শহরে আসতে হবে। উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কও এবড়োথেবড়ো।   উপজেলা শহরের অধিকাংশ সড়কেরই দশা বেহাল।

কুড়িগ্রাম-১: শঙ্কামুক্ত নন আ’লীগ নেতা-কর্মীরা!

কিন্তু, ঘর সামলাতে আওয়ামী লীগ কতটা সফল হয়েছে- তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়: এ আসনে বিগত নির্বাচনগুলোর অভিজ্ঞতা বলে, ‘ঘরের শত্রু

নৌকা-লাঙ্গলের নয়, লড়াই উজান-ভাটির!

এমনকি উজান-ভাটির এ লড়াই কুড়িগ্রাম জেলায় থাকা-না থাকার দিকেও গড়িয়েছে। রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলার সবগুলো এবং চিলমারী উপজেলার দুই

‘অ্যালা মানুষ দেখি ভোট দেমো! আর মার্কা দেইকপার নই’

ক্ষমতাসীন ও ক্ষমতার বাইরে থাকা নেতাদের আচরণ, বিগত সময়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ভূমিকা উঠে আসছে চায়ের দোকানে, বাজারে, হাটে। নানা

মিঠাপুকুর আ’লীগে গ্রুপিং, বিভক্ত ভোটাররা!

এখানকার এমপি এইচ এন আশিকুর রহমানের সঙ্গে দূরত্ব বেড়েছে তৃণমূল নেতাকর্মীদের। একই দলের হয়েও পাল্টাপাল্টি অভিযোগে লিপ্ত উভয় পক্ষ।

‘সুষ্ঠু ভোট হলে এমপি জাপার’

নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়ার এই অঞ্চল ১৫৩টি বিনাভোটের আসনগুলোর একটি। এখানকার অর্থাৎ রংপুর-৫ থেকে এইচএন আশিকুর রহমান চারবারের

এই বিভাগের সর্বাধিক জনপ্রিয়

Alexa