ঢাকা, রবিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১ সফর ১৪৪২

ইচ্ছেঘুড়ি

বাহারি আম | খোন্দকার শাহিদুল হক

কলাবতী-সিঁদুরকোটা সুন্দরী-বোম্বাই মন ছুটে যায় গুলাবখাসের সুবাস যদি পাই। দুধসাগর ও লক্ষণভোগের অসাধারণ স্বাদ মল্লিকা আর বাদশাভোগও

আনন ফাউন্ডেশনের ২৯তম শিশুসাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত

শনিবার (২৫ মে) বিকেলে আনন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আনন সেন্টার, পূর্ব ভাটারা, নতুন বাজার, গুলশান-২ এ অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি

প্রিয় নজরুল 

ব্রিটিশরা তার কাঁপত ভয়ে বাদ-প্রতিবাদ শয়ে শয়ে সাথে ছিল হুঙ্কারও যোগ দেয় দোসরও। হয়েছেন বন্দি তবু নেই সন্ধি তাইতো প্রিয় তিনি প্রিয়

তাকে চাই আগে | আলেক্স আলীম

আঁধার তাড়াতে আজ
তাকে চাই আগে।
চিরজীবী নজরুল
হৃদয়েই জাগে!

বাংলাদেশ সময়: ০৬০০ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০১৯
এএ

শান্তিপুরের রাজা-রানি (পর্ব-৪)

এদিকে হাকিমপুর ও নূরনগর রাজ্যের অধিবাসীদের জীবনযাত্রাও অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। এভাবে আরও কিছুদিন চলার পর রাজকুমারী আর রানির ছেলে

বদলে গেলো সব | আলেক্স আলীম

পিতা গেছে রাসেল গেছে সবাই গেছে চলে স্বাধীনতার স্বাদটা তখন মিটছে বুঝি ঘোলে! স্বাধীন দেশে চলছে তখন পাকিস্তানি ধারা দেশ খাচ্ছে

জোনাক-ঝিঁঝির খেলা | আবু আফজাল সালেহ

ঝি ঝি রি রি ডাকতে থাকে নির্জন বাগান দূরে জোনাকিরা সব দেয় ছড়িয়ে আলো ডাকের সুরে। ঝোপের বাগান ভরে ওঠে আলো সুরের ভেলায় রাত পেরিয়ে ভোর

বৈশাখের ভয় | সুমন বিশ্বাস

কখন যে কি হয় হবে কত সর্বনাশ!   মনে জাগে শঙ্কা ওই বাজে ডঙ্কা কেঁপে ওঠে আসমান, কৃষক ব্যস্ত মাঠে কৃষাণীও সদা খাটে উঠোনে ছড়ান ধান।  

তোতা ও ময়না পাখি যেভাবে মানুষের কথা নকল করে

কিন্তু সব পাখি কেন কথা বলতে পারে না? আর ময়না বা তোতারই কী বিশেষ ক্ষমতা আছে যে তারা কথা বলতে পারে? চলো জেনে নেওয়া যাক। তোতা পাখির বেশ

শান্তিপুরের রাজা-রানি (পর্ব-৩)

তাদের দেখা সাক্ষাতের বিষয়টি রানির ছেলের একজন বন্ধু আর রাজকুমারীর একজন বান্ধবী ছাড়া কেউই জানতো না। দুই রাজ্যের প্রজাদের

শ্রমিকের ঘাম | বাসুদেব খাস্তগীর

শ্রমিকেরা আছে বলে সুখে করি বাস শ্রমিকেরা আর নয় সেই ক্রীতদাস। এগিয়েছে পৃথিবীটা শ্রমিকের হাতে অধিকার পেলো তারা ঘাত-প্রতিঘাতে।

একদিন ভোরে রাশেদ | রানাকুমার সিংহ

তারা এই বাসায় নতুন। বড়জোর তিন মাস আগে বাসায় উঠেছে তারা। রাশেদের বাবা বনবিভাগের কর্মকর্তা। সেইসূত্রে জন্ম থেকেই বনজঙ্গলের সঙ্গে

প্লেনের গতিতে ওড়ে যেসব পাখি!

আজ জেনে নেওয়া যাক বিশ্বের ১০ আশ্চর্য গতির পাখির কথা, যাদের কেউ কেউ প্লেনের মতো দ্রুতগতিতে আকাশপথে ছুটতে পারে। ১০. ক্যানভাসব্যাক

রুদ্রমূর্তির গ্রীষ্ম | আবু আফজাল সালেহ

খাঁ খাঁ পথে চোখের পলক চিকিমিকি সাজে। গা ঝরিয়ে মিতু ভুতু শরীর করে কুতু কুতু দরদরিয়া ঘামে, ঝড় বাতাসে নারী-পুরুষ পথ আটকিয়ে করে বেহুঁশ

বই দিবসের ছড়া | আলেক্স আলীম 

বই তোমাকে আলো দেবে বই দেখাবে পথও। স্বপ্ন নিয়ে জাগো সবাই সভ্যতাতে ক্ষত! অন্ধকারে পথ হারালে বই জোগাবে দিশা। তুড়ি মেরে উড়িয়ে দেবে

ধরিত্রী কি থামে | আলেক্স আলীম

পাহাড় কেটে সভ্যতাকে ধ্বংস কেন করি। সাগরটা হোক গর্জনময় ঢেউয়ের ছড়াছড়ি। পরিবেশকে করতে দূষণ কেন দেবো ছাড়! সবার আগে ভাবতে হবে 

শান্তিপুরের রাজা-রানি (পর্ব-২)  

একদিন হাকিমপুরের রাজা পাশের কোন রাজ্যে যাওয়ার উদ্দেশে বের হয়েছিলেন। রাজার সঙ্গে পাইক, পেয়াদা, উজির, নাজির ছিল। সে সময় নূরনগরের রানি

কত বেগে দৌড়ায় চিতা-হরিণ-সিংহ?

চুতষ্পদ মানে চার পেয়ে প্রাণীদের মধ্যে চিতার গতিবেগই সবচেয়ে বেশি। এরা ঘণ্টায় ছুটতে পারে ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিতে। এ

বৈশাখী উৎসবে | আবু আফজাল সালেহ

চিবুক হাতে আল্পনায় চোখে মনে কল্পনায়, লালসবুজের শাড়িতে দাদু ভাইয়ের গাড়িতে হাত ভরিয়ে জুঁইশাখে মেতে উঠি বৈশাখে। বাংলাদেশ সময়: ১২৪০

বৈশাখী মেলায় | আলমগীর কবির 

নাগরদোলায় চড়বো আমি  অনেক দিনের ইচ্ছে,  খুশির পাখি বুকের ভেতর  কেবল সাড়া দিচ্ছে!  কার জন্য কি, কিনবো সে সব মেলায় গিয়ে ভাববো,

এই বিভাগের সর্বাধিক জনপ্রিয়

Alexa