ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

শিশুর শীতকালীন ডায়রিয়া প্রতিরোধে রোটা ভ্যাকসিন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৬
শিশুর শীতকালীন ডায়রিয়া প্রতিরোধে রোটা ভ্যাকসিন ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা: শীতকালে শিশুদের ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার জন্য দায়ী সংক্রামক ভাইরাস 'রোটা'। তবে শিশুকে এই ভাইরাস থেকে প্রতিরোধ করতে রয়েছে ভ্যাকসিন।

দুই বা তিন ডোজের রোটা ভাইরাস ভ্যাকসিন নিয়ে শিশুকে রাখা যায় নিরাপদ।

পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুরা রোটা ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হয় বেশি। আর দুই বছরের কম বয়সী শিশুরা আরও বেশি ঝুঁকিতে থাকে।

আইসিডিডিআরবির (আন্তর্জাতিক উদরাময় রোগ গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ) ক্লিনিক্যাল সার্ভিসের ইনচার্জ ও প্রধান চিকিৎসক ডা. প্রদীপ কে. বর্ধন বাংলানিউজকে বলেন, রোটা ভাইরাসের সংক্রমণে ডায়রিয়া হলে শিশুরা দুর্বল হয়ে পড়ে। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে। তবে বর্তমানে রোটা ভাইরাস প্রতিরোধের ভ্যাকসিন পাওয়া যাচ্ছে।

তিনি জানান, হাসপাতালগুলোতে রোটা রিক্স ও রোটা টেক নামে দুই ধরনের ভ্যাকসিন রয়েছে রোটা প্রতিরোধে। যে কোনো একটি ভ্যাকসিন নিয়েই শিশুকে নিরাপদ রাখা যায় ভাইরাস থেকে। রোটা টেকের মূল্য প্রতি ডোজ ১৬০০ টাকা, এটি তিন ডোজ নিতে হয়। রোটা রিক্সের প্রতি ডোজের মূল্য ১৮০০ টাকা। এটি দু’বারে নিতে হয়।

তবে শিশুর জন্মের ৬ সপ্তাহের আগে এ ভ্যাকসিন নেওয়া যাবে না। প্রথম ডোজের ৪ সপ্তাহ পার হলেই পরবর্তী ডোজ নিতে হবে। তবে শিশুর বয়স ৬ মাস হওয়ার আগেই ভ্যাকসিনের ডোজ সম্পন্ন করতে হবে।

তিনি বলেন, এ ভ্যাকসিন আটলান্টার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন অনুমোদিত। এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

তবে ইপিআই’তে (সম্প্রসারিত টিকা দান কর্মসূচি) অর্ন্তভুক্ত না থাকায় ভ্যাক্সিনের মূল্য এখনো অনেক বেশি বলে মনে করেন তিনি।

ডা. প্রদীপ কে. বর্ধন বলেন, শীতকালে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত শিশুদের ৫৫ শতাংশই রোটা ভাইরাসের সংক্রমণে অসুস্থ হয়।

তিনি বলেন, গ্রীষ্ম বা বর্ষায় ডায়রিয়ার কারণ থাকে ব্যাকটেরিয়া। আর আমাদের দেশে শীতকালে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। এটা মুখের মধ্য দিয়েই শিশুদের পাকস্থলীতে প্রবেশ করে। বড়দের ক্ষেত্রে রোটা খুব একটা দুর্বল করতে পারে না। প্রাপ্তবয়স্কদের শরীরের রোটা ভাইরাস প্রতিরোধ ক্ষমতা যথেষ্ট থাকে।

এ কারণে শিশু কি খাচ্ছে, সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। কিছু ধরার পরে মুখে আঙুল দিচ্ছে কিনা সেটি খেয়াল রাখতে হবে। আর বাইরে থেকে কেনা খাবার যেন অবশ্যই বিশুদ্ধ করে খাওয়ানো হয়।

রোটা ভাইরাস প্রতিরোধে মায়ের দুধ কার্যকর বলে জানান তিনি। বলেন, যেসব শিশু ছয়মাস বয়স পর্যন্ত শুধু মায়ের দুধ খায়, তাদের ঝুঁকি অনেক কম থাকে। আর ডায়রিয়া হলে শিশুর স্বাভাবিক খাবার বন্ধ করা যাবে না। এর ফলে শিশু আরও বেশি দুর্বল হয়ে পড়ে এবং ঝুঁকিতে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৬
এমএন/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

স্বাস্থ্য এর সর্বশেষ

welcome-ad