ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ৩০ জুন ২০২২, ০০ জিলহজ ১৪৪৩

বইমেলা

মনজুরে মওলা ও হাবীবুল্লাহ সিরাজীকে স্মরণ

স্টাফ করেসপনডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৩ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০২২
মনজুরে মওলা ও হাবীবুল্লাহ সিরাজীকে স্মরণ

ঢাকা: অমর একুশে বইমেলায় কাজী মুহম্মদ মনজুরে মওলা ও হাবীবুল্লাহ সিরাজীর স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৫ মার্চ) বিকেল ৪টায় বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়।

আলোচনায় অংশ নেন মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, আসাদ মান্নান এবং সাহেদ মন্তাজ। সভাপতিত্ব করেন সুব্রত বড়ুয়া।

প্রাবন্ধিক কাজল বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কবি মনজুরে মওলা এবং কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী দুজনেই শিল্পসাহিত্য-পরিমণ্ডলে পরিচিত দুই নাম। দুজনেই বাংলা একাডেমিতে মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। জনপ্রশাসকের পেশা কাজী মনজুরে মওলার বুদ্ধিবৃত্তিক কর্মকাণ্ডকে কিছু বিশেষ চরিত্র ও ঝোঁক জুগিয়েছিল। গবেষক-লেখক হিসেবে তিনি ছিলেন প্রচারবিমুখ। রবীন্দ্রনাথ সম্পর্কে তার জানাশোনা ছিল বিস্ময়কর। অন্যদিকে কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী প্রকৌশল-বিদ্যায় শিক্ষালাভ করলেও কাব্যজগতে বিচরণ করেছেন সাবলীলতার সঙ্গে। বাংলা কবিতার ক্ষেত্রে এই দুজন কবিই স্বতন্ত্র কাব্য-ভাবনা, ভাষা ও বক্তব্য তাদের কবিতায় তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন।

আলোচকরা বলেন, বাংলা কবিতার ইতিহাসে কবি মনজুরে মওলা ও কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজীর কবিতা যে স্থায়ী আসন অর্জন করেছে, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। ব্যক্তিমানুষ হিসেবে মনজুরে মওলার রসবোধ ও সহজ-সরস সাহচর্য ছিল সবার উপভোগ্য। অন্যদিকে কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী ছিলেন সদাহাস্য, উদারচিত্ত ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব। আমাদের মণিকোঠায় এ দুজন বরেণ্য মানুষ তাদের সৃষ্টিশীলতার গুণে চিরকাল বেঁচে থাকবেন।

সভাপতির বক্তব্যে সুব্রত বড়ুয়া বলেন, কবি মনজুরে মওলা এবং কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী—এ দুজন গুণী ব্যক্তি বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। জাতীয় মেধা ও মননের প্রতীক এই প্রতিষ্ঠানকে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তারা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তাদের জীবন, আদর্শ ও কর্ম আমাদের চিন্তার জগৎকে আরও প্রসারিত করবে।

বিকেলে লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের বই নিয়ে আলোচনা করেন বিমল গুহ এবং শাহেদ কায়েস। অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ করেন কবি ঝর্না রহমান এবং ইমরুল ইউসুফ। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল ‘কাশফুল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ’-এর পরিবেশনা। সংগীত পরিবেশন করেন সাইদুর রহমান বয়াতী, আমিরুল ইসলাম, সঞ্জয় কুমার দাস, নাজমুল করিম মানিক, রাকিবুল ইসলাম রাকিব এবং শারমিন সুলতানা, শিমু দে।

শনিবার বইমেলায় নতুন বই এসেছে ১২৯টি। রোববার অমর একুশে বইমেলার ২০তম দিন। মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৬ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২২
এইচএমএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa