ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

বইমেলা

চার নায়িকাকে উৎসর্গ করে প্রেমের উপন্যাস!

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৬
চার নায়িকাকে উৎসর্গ করে প্রেমের উপন্যাস!

বইমেলা থেকে : অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে রণজিৎ সরকারের উপন্যাস ‘নায়িকার প্রেমে পড়েছি’। তার মতে, ‘অধিকাংশ মানুষ নায়ক-নায়িকার প্রেমে পড়ে।

প্রেমে পড়েছেন আপনিও!’ বইটি উৎসর্গও করা হয়েছে কয়েকজন নায়িকাকে। তারা হলেন : শাবনূর, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, জ্যোতিকা জ্যোতি ও বিদ্যা সিনহা মিম।
 
তিনি বলেন, ‘কেউ কেউ প্রেমে পড়ে নিজেকে ফতুর করে দেয়। হয়তো তারা এ সময় উপলদ্ধি করে যে, জীবন মানেই নাট্যমঞ্চ। সুতরাং এখানে নায়ক-নায়িকার প্রেমে পড়ার কাহিনী নিয়ে এই উপন্যাস। ’
 
নায়িকার প্রেমে পড়া নিয়ে উপন্যাস লিখতে গেলেন কেন? জানতে চাইলে রণজিৎ সরকার বলেন, ‘যৌবনের শুরুতে পর্দায় নায়ক-নায়িকার ছবি দেখে মুগ্ধ হই আমরা। মুগ্ধতা থেকে ভালোলাগা আর ভালোলাগা থেকেই কোনো একজনের প্রেমে পড়ি অনেকেই। এভাবে নায়িকার অজান্তে তাকে হৃদয়ে একান্ত আপন করে ভাবি। কল্পনার জগতে হাবুডুবু খাই। ’
 
আক্ষেপ করে তিনি বলেন, ‘কিন্তু কোনোভাবে এ কথা তাকে আর বলা হয় না। বলার সুযোগ হয় না। শুধু পর্দায় দেখে মুগ্ধ হই। ’
 
তিনি আরো বলেন, ‘হৃদয়ের সঙ্গী হিসেবে আপন মনে পথ চলি তাকে নিয়ে। কিন্তু কথাগুলো একান্ত হৃদয়ের কোণে জমা হয়ে থাকে। আর এই জমানো কথাই নায়িকার প্রেমে পড়েছি উপন্যাসে বলার চেষ্টা করেছি আমি। আশা করি যারা এমন প্রেমে পড়েছেন। তারা উপন্যাসটা পড়লে নিজেকে খুঁজে পাবেন। আপনার মনের লুকানো প্রেমের কথাই বলা হয়েছে। যা পড়ার পর এক নিশ্বাসে বলবেন, এ তো আমার জীবনের প্রেমকাহিনী!’

বইয়ে উৎসর্গ হবার বিষয়টি জানতেন কিনা, জানতে চাইলে নায়িকা জ্যোতিকা জ্যোতি বাংলানিউজকে বলেন, ‘এরকম একটি বই আরো তিনজনকেসহ আমাকে উৎসর্গ করা হয়েছে ব্যাপারটি আমি জানতাম না। তবে লেখক আমার পরিচিত সাংবাদিক। সাধারণত দেখা যায়, নায়িকাদের প্রতি দুর্বলতার কথা বেশিরভাগ লেখকই লুকিয়ে রাখতে পছন্দ করেন। এক্ষেত্রে রণজিৎ সাহসী ভূমিকা পালন করেছেন, তাকে অভিনন্দন জানাই। ’

বইটি প্রকাশ করেছে শব্দশৈলী। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে তাদের স্টল নম্বর ৪৩৪-৪৩৬। প্রচ্ছদ করেছেন সোহেল আমান। বিনিময় মূল্য ১৬০ টাকা। ঘরে বসে বইটি সংগ্রহ করতে চাইলে ভিজিট করুন rokomari.com-এ। অথবা কল করুন ১৬২৯৭ নম্বরে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮২৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৬
টিকে/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa