ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

বইমেলা

বইমেলায় সেলিনা শিরীন শিকদারের কবিতা সংকলন ‘জোনাকীর সরোবর’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৩
বইমেলায় সেলিনা শিরীন শিকদারের কবিতা সংকলন ‘জোনাকীর সরোবর’

ঢাকা: পাঠ এবং অর্থের মধ্যে যখন একটি সম্পর্ক সুস্পষ্ট, ভাব-ভাবনা-কল্পনার রং অর্থপূর্ণ নিজস্ব জগৎ নির্মাণে যখন পরিমিত বোধে সৃষ্টিশীল, তখন সে রচনা হয়ে ওঠে সমাজ-সভ্যতা-জীবন অনুভবের বিমূর্ত ও তরল যুগপৎ প্রতিসরণ। কবিতার অন্তর্নিহিত বার্তা তখনই আমাদের বোধে ও মননে স্পষ্ট হয়ে ওঠে।

নানা ছন্দে বর্ণে বর্ণনায় চিত্রিত হতে থাকে জীবনেরই বিচিত্র ছাপচিত্রে।

এমন কিছু কবিতা নিয়েই অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে বিশিষ্ট লেখক ও কবি সেলিনা শিরীন শিকদারের কবিতা সংকলন গ্রন্থ ‘জোনাকীর সরোবর’। প্রকাশ করেছে জাগৃতি প্রকাশনী। শুভেচ্ছা মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৬০ টাকা।

সেলিনা শিরীনের কবিতা নানা বার্তায় ব্যাঞ্জনাময়। তার কবিতা পড়তে পড়তেই পাঠকের মনে কবিতার অন্তর্নিহিত বার্তার পরিস্ফুটন ঘটে। এ গ্রন্থে সংকলিত কবিতাগুলো কেবলমাত্র বার্তাপূর্ণ নয়, সঙ্গে দার্শনিক মূল্যবোধ সম্পন্নও।

সেলিনা শিরীন শিকদার স্বতঃস্ফূর্ত তীক্ষ্ণ অন্তর্দৃষ্টি মেলে দেখেন তার পারিপার্শ্বিক জীবন। একই সঙ্গে তিনি পর্যবেক্ষণ করেন তার আপন অনুভূতির গতিপ্রকৃতি। এ দেখার ক্ষমতা তার রচনাকে করে তোলে বৈশিষ্টমন্ডিত।

এ বিষয়ে লেখক বলেন, লেখা উপলব্ধির গভীরে যখন মনোযোগ টেনে নিয়ে যায়, তখন পাঠকের কাছে স্পষ্ট হয়ে ওঠে যে সবকিছুই বিনির্মাণ নয়, কারো কারো লেখায় আবিষ্কারও রয়েছে। অগ্রজ কবিরা যা লেখেনি, তা নতুন কবিরা লেখেন। আমার কবিতার বিষয়বস্তুর তালিকায় সেই নতুন সংযোজনের চেষ্টায় করেছি। রয়েছে দর্শন, উপলদ্ধি এবং আবিষ্কারের মধ্যে সময়ের ভেদ।

এ বইয়ের কবিতাগুলো কবির পূর্ববর্তী কবিতার বই থেকেও ভিন্ন। তার কবিতায় যেমন মনস্তাত্ত্বিক বিষয়াবলি ও অভিজ্ঞতা-অভিজ্ঞানের পরিস্ফুটন লক্ষণীয়, তেমনি সমাজ-বাস্তবতা ও রাজনৈতিক চেতনায় যাবতীয় দুর্যোগ অতিমারি মরকের মধ্যেও জীবনমুখিতার চিত্রণ প্রয়াসও প্রশংসনীয়। সর্বত্র অর্থ স্থির নয় বরং প্রতিনিয়ত শব্দের ব্যবহারে অর্থ পরিবর্তনের ভেতরে ক্রমাগত বিকশিত। সময় ও স্থান ভেদে তা পরিবর্তিতও হয়।

প্রেম, প্রকৃতি, সমাজ-সংস্কৃতি, লোকজ, আদিবাস ও অভিবাসনের উপকরণ, অনুসঙ্গ আর ঐতিহ্যের ব্যবহারের নিজস্ব শৈলী তার কবিতাকে মানবিক উচ্চতায় অর্থপূর্ণ এক মাত্রা দিয়েছে। সেলিনার রচনার এ বৈশিষ্টগুলো এবং হৃদয়গ্রাহী আবহ তার কবিতাকে পাঠকপ্রিয়তা দেবে বলেই সবার প্রত্যাশা।

সেলিনা শিরীন শিকদার মূলত রূপকথা গল্পকার, কবি, প্রাবন্ধিক ও গবেষক। পেশাগত জীবনে তিনি একজন আন্তর্জাতিক উন্নয়ন পেশাজীবী ও মনোবিজ্ঞানী। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা লাভ করেন আজিমপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়,বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা মহাবিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও যুক্তরাষ্ট্রের ক্লার্ক ইউনিভার্সিটি থেকে। তিনি প্রধানত রূপকথার আঙিকে গল্প লেখেন। তার একটি ছোট কবিতা যা ‘বয়েত’ নামে সমাদৃত।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৩ 
এইচএমএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।