ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

বঙ্গবন্ধু বিপিএল-২০১৯

অভিমান নিয়ে চলি না, অবসর প্রসঙ্গে মাশরাফি

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-১১-০১ ০২:৩৯:৩০ এএম
অভিমান নিয়ে চলি না, অবসর প্রসঙ্গে মাশরাফি মাশরাফি বিন মর্তুজা/ছবি: শোয়েব মিথুন

সবারই ধারণা ছিল ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষ অবসরে চলে যাবেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। বিশ্বকাপে বোলার মাশরাফির পারফরম্যান্সও ছিল হতাশাজনক। ৮ ম্যাচে মাত্র একটি উইকেট। তখনই মাশরাফির ক্যারিয়ারের ইতি দেখে ফেলেছিল অনেকে। এরপর প্রায় ৬ মাস ছিলেন ক্রিকেটের বাইরে। এমনকি ক্রীড়া সাংবাদিকদের থেকেও দূরত্ব বজায় রেখেছিলেন তিনি।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) বিপিএলে রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ১১ রানে হেরেছে মাশরাফির ঢাকা প্লাটুন। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন অধিনায়ক মাশরাফি।

এখানে আবেগী এক মাশরাফিকে পাওয়া গেল।  জানালেন, বিদায় বলার জন্য যে ম্যাচ খেলতে হবে, ফুলের তোড়া নিয়ে অপেক্ষা করতে হবে, এমন কোনো কথা নেই। এসব আবেগ নিয়ে তার মাথাব্যথা নেই বলেই জানালেন তিনি। তবে কি এসব অভিমান থেকে বলছেন দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক?

অবসর ভাবনা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অভিমান প্রসঙ্গেও মুখ খুললেন মাশরাফি, ‘অভিমান আমার মনে হয় না। আমি যখন টি-টোয়েন্টি থেকে বিদায় নিয়েছি, অনেক কারণ আপনাদের বলেছি। আমি অভিমান-টভিমান নিয়ে চলি না। এটা একেবারেই নাই। আর অবসর নিয়ে যেটা বললেন, আপনি বলতে পারেন, অবসর সবাই করিয়ে দিয়েছে। আমি নিজেও হয়তো যে জায়গায় অবস্থান করছি, সেটাকে উপভোগ করছি। ’ 

মাঠ থেকে অসবর নেওয়া নিয়ে প্রশ্নের জবাবে তার উত্তর, ‘মাঠ থেকে অবসর নেব কি নেব না, সেটা এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি। যদি সেরকম অবস্থা তৈরি হয়, ক্রিকেট বোর্ড যদি মনে করে তাহলে হয়তো চিন্তা-ভাবনা করব। আমি নিজেকে এত গুরুত্ব দিই না যে আমাকে মাঠ থেকে বিদায় দেবেন সবাই, ফুলের তোড়া নিয়ে আসবেন। এটা প্রয়োজনীয় না। আমি যেমন আছি ভালো আছি, এনজয় করছি খেলা। জাতীয় দল অনেক দূরের ব্যাপার। ’

ওয়ানডে অধিনায়ক সুযোগ পেলে খেলা চালিয়ে যাবেন কিনা এমন প্রশ্নে মাশরাফি বলেন, ‘এখন নির্বাচনের একটা ব্যাপার। ৮ ম্যাচে ১ উইকেট (বিশ্বকাপে) পাওয়ার পর তো আমি দলে জায়গা প্রত্যাশা করতে পারি না, সত্যি কথা বললে। নির্বাচকরা যদি মনে করেন আমাকে সুযোগ দেবেন, আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। এই মুহুর্তে আমি কীভাবে বলি আমি জাতীয় দলে সুযোগ পাব। অন্য কেউ হলে অবশ্যই আরও আগে বাদ হতো। ’ 

‘যে খেলাটা শুরু করেছিলাম, কেউ জাতীয় দল থেকে শুরু করে না। আমি আবার সেখানে (ডমেস্টিক) ফিরে গেছি। বিপিএল খেলেছি, সামনে ঢাকা লিগ এনজয় করব। সব সময় জাতীয় দলে খেলতে হবে, জাতীয় দলকে প্রতিনিধিত্ব করলেই আপনি খেলোয়াড়, সেরকম তো না,’ যোগ করেন মাশরাফি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২০
আরএআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa