ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

ব্যাংকিং

আমানতের সুদ না বাড়ানোর নির্দেশ অর্থমন্ত্রীর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৮ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৮
আমানতের সুদ না বাড়ানোর নির্দেশ অর্থমন্ত্রীর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত (ফাইল ফটো)।

ঢাকা: আমানতের সুদ না বাড়ানোর জন্য রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বুধবার (২০ জুন) সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ফজলে কবির, ডেপুটি গর্ভনর এম মনীরুজ্জামানসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকই একমাত্র ব্যাংক, যাদের আমি নির্দেশনা দিতে পারি। আজ তাদের ডেকেছিলাম। আমি তাদের বলেছি, একটু যদি ‘নামেন-টামেন’, তাহলে ভালো হয়। আমাদের আলোচনা হয়েছে, আমরা ডিপোজিট রেট তো বেশ কন্ট্রোল করতে পারি। বিড করে লোকে। এটাই তাদের বলা হয়েছে, তোমরা বেশি নিবা না। ডিপোজিট রেট বাড়াবে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, লেন্ডিং রেট আমরা চাই, যেটা প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন। লেন্ডিং রেট এমন হওয়া উচিত না যাতে ইনভেস্ট হয় না।

সরকারি ব্যাংকের লেন্ডিং রেট কত হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সর্বোচ্চ কত হবে আমি বলব না, সেটা ওরাই (সরকারি ব্যাংক) বলবে।

এসময় তিনি আরও বলেন, ডিপোজিট রেট আই ডোন্ট ওয়ান্ট টু গিভ এ ফিগার বাট এটা ইজ নট অ্যানিথিং টু মেক প্রফিট ফ্রম, ইজ নট ফর প্রফিট। হিউজ মানি ইজ গিভিং পার্ট ইনটু স্পেন্ড। এটা প্রফিট করার জন্য দেওয়া হয় না।

‘বিএবি ঋণের সুদ কমানোর ঘোষণা দেওয়ায় বাজারে সুদ কমবে। তাতে ১০ শতাংশের নিচে একটি সংখ্যার মধ্যে থাকবে। আমি তাদের ইমপোজ করিনাই। তারা স্বেচ্ছায় করেছে। এজন্য তাদের সাদুবাধ জানাই, বললেন মুহিত।

পরে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ফজলে কবির বলেন, এখন থেকে লেন্ডিং রেট নয় শতাংশই হবে।

আগে বেশি সুদে ঋণ বিতরণের বিষয়ে জানতে চাইলে ডেপুটি গর্ভনর এম মনীরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

তবে বৈঠকে উপস্থিত একজন ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, এখন থেকে নয় শতাংশ সুদে ঋণ বিতরণ করবে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর আজকের আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছে ঋণের সুদ নয় শতাংশের বেশি নেওয়া যাবে না। থাকবে এক অংকের ঘরে (১০ এর ভেতরে), সেটা যে পরিমাণই হোক।

তিনি আরও বলেন, আমাদের অনেক ঋণের সুদ আগে থেকেই চার শতাংশ আছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৮
এসই/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।