জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: যোগ্য বিবেচিত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কাউকে বঞ্চিত করা সরকারের লক্ষ্য নয় বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনী।

">
bangla news

যোগ্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৬-২৪ ৮:১৭:৩২ পিএম
যোগ্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত
সংসদ ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনী

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: যোগ্য বিবেচিত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। কাউকে বঞ্চিত করা সরকারের লক্ষ্য নয় বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনী।

সোমবার (২৪ জুন) জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এ সময় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তির জন্য যে ৪টি ক্রাইটেরিয়া ধরে অনলাইনে আবেদন আহ্বান করা হয়েছিলো, তার ভিত্তিতে এমপিওর জন্য যোগ্য বিবেচনা করা হয়েছে। একজন শিক্ষকের পরিচয় তার প্রতিষ্ঠানের পারফরম্যান্স দিয়ে বিবেচিত হয়। আমরা অভিযোগ শুনি, পত্র-পত্রিকায় আসে কোনো কোনো শিক্ষক টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের নোট পড়াতে, গাইড বই পড়তে, কোচিংয়ে যেতে বাধ্য করে। যাদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ রয়েছে আমরা তাদেরতো পুরস্কৃত করতে চাই না। ওইসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিও দিলে যোগ্যতার কদর থাকে না। 

যোগ্য বিবেচিত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে শেখ হাসিনার সরকার এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের উদ্দেশ্য নয় কাউকে বঞ্চিত করা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইনে যে তথ্য তার ভিত্তিতেই যোগ্য বিবেচিত হয়েছে। যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিবেচিত হয়নি সেগুলোর দিকে আমরা সবাই মিলে নজর দেই, চেষ্টা করি যাতে আগামীতে এমপিওভুক্তির জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়। 
দিপু মনী বলেন, শিক্ষাখাতে ৬১ হাজার ১১৮ কোটি টাকা বাজেট বিএনপির শেষ বাজেটের পরিমাণের দশগুণ। বিএনপি যদি অবকাঠামোর উন্নয়ন করতো তাহলে অকাঠামোর উন্নয়নের দিক থেকে আমরা এগিয়ে থাকতাম। আজ অবকাঠামোর উন্নয়নে বাজেটে বরাদ্দ বেশি দিতে হতো না। শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে আমরা বরাদ্দ আরও বেশি দিতে পারতাম। বিএনপির একজন সংসদ সদস্য বলেছেন দেশ মৃত্যুর উপত্যকা। তারা যখন আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে, শেখ হাসিনা সরকার তাদের সেই চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়েছে, তাই তাদের এতো আপত্তি। 

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৯ 
এসকে/জেডএস

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-08-18 19:35:42 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান