ঢাকা: বহুদিন ধরেই ঘরের ভেতর অদ্ভুত শব্দ শুনতে পেতেন এক দম্পতি। প্রথম প্রথম এর উৎপাত খুব বেশি না হলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গেই তা বাড়তে থাকে। অবস্থা এমন হয় যে, রাতে ঘুমানোই দায়! শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়েই লোক ডাকতে হয় তাদের।

">
bangla news

বেডরুমে ৮০ হাজার মৌমাছি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৫-২১ ১:০০:৪৯ পিএম
বেডরুমে ৮০ হাজার মৌমাছি!
দেয়ালের ভেতর পাওয়া বিশাল মৌচাক। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: বহুদিন ধরেই ঘরের ভেতর অদ্ভুত শব্দ শুনতে পেতেন এক দম্পতি। প্রথম প্রথম এর উৎপাত খুব বেশি না হলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গেই তা বাড়তে থাকে। অবস্থা এমন হয় যে, রাতে ঘুমানোই দায়! শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়েই লোক ডাকতে হয় তাদের।

অনেক খোঁজাখুঁজির পর ঘরের দেয়াল ভেঙে যা দেখা যায়, তাতে চক্ষু চড়কগাছ সবার! ঘাপটি মেরে ওই ঘরে বাসা বেঁধেছিল প্রায় ৮০ হাজার মৌমাছি। তাদের শব্দেই ঘুম হারাম ওই দম্পতির।

সম্প্রতি স্পেনের গ্রানাডা শহরের আন্দালুসিয়ায় ঘটেছে এ ঘটনা।

মৌমাছি বিশেষজ্ঞ সার্জিও গুয়েরিরো বলেন, ওই দম্পতি বছরখানেক আগে বাড়িতে প্রথমবারের মতো মৌমাছি দেখতে পান। কিন্তু সেসময় পুলিশ, দমকলকর্মী বা স্থানীয় কেউই মৌচাক খুঁজে পাননি।

তিনি বলেন, গরম বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে থাকে। প্রায় তিন মাস আগে শব্দের পরিমাণ অসহ্য পর্যায়ে চলে যায়।

‘গত ১২ মে ওই বাড়িতে আমরা আবার তল্লাশি চালাই। এদিন বেডরুমের দেয়ালের ভেতর প্রায় ৮০ হাজার মৌমাছির বাসা খুঁজে পাই।’ 

এ মৌমাছি বিশেষজ্ঞ বলেন, মৌচাকটি এতটাই বড় ছিল যে, বোঝা যাচ্ছে, তারা ওখানে বেশ কয়েক বছর ধরেই বাসা বেঁধেছে। এলাকায় প্রচুর ফুল থাকায় মৌচাকটি এত বড় হতে পেরেছে। 

বিশ্বব্যাপী মৌমাছির সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে কমলেও ব্যতিক্রম ইউরোপের দেশ স্পেন। সেখানকার জনগণ মৌমাছি রক্ষায় বেশ সচেতন। ফলে দেশটিতে দিন দিন মৌমাছির সংখ্যা বাড়ছে।

গুয়েরিরো জানান, তিনি আগের চেয়ে এবছর মৌমাছি উদ্ধারের জন্য বেশি ডাক পাচ্ছেন। এতে বোঝা যাচ্ছে, আন্দালুসিয়ায় মৌমাছিরা সুখেই আছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৫ ঘণ্টা, মে ২১, ২০১৯
একে

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-07-21 08:20:07 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান