রাজশাহী: শ্লীলতাহানির গ্লানিতে রাজশাহীর মোহনপুরে বাকশিমইল উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার বর্ষা (১৪) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার করেছে। 

">
bangla news

শ্লীলতাহানি: মোহনপুরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম | আপডেট: ২০১৯-০৫-১৭ ৫:২২:২৮ এএম
শ্লীলতাহানি: মোহনপুরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
প্রতীকী ছবি

রাজশাহী: শ্লীলতাহানির গ্লানিতে রাজশাহীর মোহনপুরে বাকশিমইল উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার বর্ষা (১৪) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার করেছে। 

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) বিকেলে উপজেলার বিলপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বর্ষা একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে। 

রাজশাহীর মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হোসেন বাংলানিউজকে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে মামলা দায়ের করা হবে।

এদিকে খবর পেয়ে ওই স্কুলছাত্রীর বাড়িতে যান জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহিদুল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুব্রত দে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানওয়ার হোসেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৩ এপ্রিল প্রাইভেট পড়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় সুমাইয়া। বিকেল হয়ে গেলেও বাড়ি না ফেরায় পরিবার লোকজন প্রাইভেট সেন্টারে গিয়ে খোঁজ নেন। সেসময় তানোর লালপুর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক গোলাম মোস্তফা স্কুল শিক্ষার্থীর বাবাকে মোবাইল ফোনে জানান- তার মেয়ে মোহনপুর-কালিগঞ্জমুখী পাকা রাস্তার উত্তর পাশে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে আছে। খবর পেয়ে বর্ষাকে উদ্ধার করে প্রথমে মোহনপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি) ভর্তি করেন আব্দুল মান্নান। 

পরে এ ঘটনায় আব্দুল মান্নান বাদী হয়ে গত ২৭ এপ্রিল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তিনজনকে আসামি করে অপহরণ ও শ্লীলতাহানির মামলা করেন। পরে পুলিশ একজনকে আটকও করে।

বাংলাদেশ সময়: ০৫২০ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০১৯
এসএস/এসআরএস

Phone: +88 02 8432181, 8432182, IP Phone: +880 9612123131, Newsroom Mobile: +880 1729 076996, 01729 076999 Fax: +88 02 8432346
Email: news@banglanews24.com , editor@banglanews24.com
Marketing Department: 01722 241066 , E-mail: marketing@banglanews24.com

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কপিরাইট © 2019-08-18 04:32:41 | একটি ইডব্লিউএমজিএল প্রতিষ্ঠান